‘আমেরিকা দায়েশ সন্ত্রাসীদের সমর্থন দিচ্ছে, সন্ত্রাস দমন তাদের লক্ষ্য নয়’

সিরিয়ার প্রেসিডেন্ট বাশার আল আসাদের নেতৃত্বাধীন সরকারি বাহিনীর ওপর মার্কিন হামলাকে যুদ্ধাপরাধ হিসেবে ঘোষণা করেছে দামেস্ক। সিরিয়ার সরকার বলেছে, দেইর আজ-জোরে সাম্প্রতিক মার্কিন নেতৃত্বাধীন হামলার মধ্যদিয়ে আবারও এ বাস্তবতাই ফুটে উঠেছে যে, আমেরিকা দায়েশ সন্ত্রাসীদের সমর্থন দিচ্ছে। সন্ত্রাস দমন তাদের লক্ষ্য নয়।

সিরিয়ার পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় জাতিসংঘ মহাসচিব ও নিরাপত্তা পরিষদের সভাপতির কাছে পাঠানো আলাদা দু’টি চিঠিতে আমেরিকার অপরাধযজ্ঞ বন্ধে পদক্ষেপ নেয়ার আহ্বান জানিয়েছে। পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের চিঠিতে আরও বলা হয়েছে, সিরিয়ায় সামরিক ঘাঁটি নির্মাণের জন্য আমেরিকা সন্ত্রাসবাদের বিরুদ্ধে লড়াইয়ের স্লোগান দিচ্ছে।

মার্কিন বাহিনী অবৈধভাবে সিরিয়ায় অবস্থান করছে উল্লেখ করে দেশটির পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় বলেছে, দেইর আজ-জোরে হামলার দায় আমেরিকাকে নিতে হবে। আমেরিকার অপরাধযজ্ঞের বিরুদ্ধে পদক্ষেপ নিতে দামেস্ক আন্তর্জাতিক সমাজের প্রতি আহ্বান জানিয়েছে।

সিরিয়া মনে করে, একটি দেশের সরকারি বাহিনীর বিরুদ্ধে যুদ্ধাপরাধের জন্য মার্কিন নেতাদের কঠোর শাস্তি উচিত।

বুধবার মার্কিন সেনারা বলেছে, সিরিয়ার পূর্বাঞ্চলীয় দেইর আজ -যোর প্রদেশে তারা প্রেসিডেন্ট বাশার আল-আসাদের অনুগত অন্তত ১০০ যোদ্ধাকে হত্যা করেছে। আমেরিকা দাবি করেছে, এসব যোদ্ধা মার্কিন সমর্থিত কথিত সিরিয়ান ডেমোক্র্যাটিক ফোর্সেস বা এসডিএফ’র ওপর হামলার পরিকল্পনা করছিল।

এ বিষয়ে রুশ প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয় বলেছে, সিরিয়ার সরকার সমর্থিত এসব যোদ্ধা দেইর আজ-যোরের আল-ইসবা তেল শোধানাগারের কাছে দায়েশ সন্ত্রাসীদের বিরুদ্ধে অভিযান চালাচ্ছিল। ওই সময় মার্কিন সেনারা তাদের ওপর হামলা চালায়