মহারানি খালেদা এখন কারাগারেঃ কাদের

আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের বলেছেন, মহারানি খালেদা জিয়া এখন কারাগারে। তবে এ নিয়ে আমাদের কোনো বক্তব্য নেই, এটা আদালতের ব্যাপার। বৃহস্পতিবার (০৮ ফেব্রুয়ারি) বিকেলে বরিশাল বঙ্গবন্ধু উদ্যানে আওয়ামী লীগ আয়োজিত জনসভায় দুর্নীতি মামলায় সাজা পেয়ে কারাগারে যাওয়া বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়াকে উদ্দেশ্য করে এ কথা বলেন ওবায়দুল কাদের।

জনসভায় প্রধান অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন আওয়ামী লীগ সভাপতি ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। বরিশাল জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি আবুল হাসানাত আবদুল্লাহর সভাপতিত্বে জনসভায় দলের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদেরসহ কেন্দ্রীয় ও স্থানীয় নেতারা বক্তব্য রাখেন।

আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক বলেন, শেখ হাসিনার অবদান পদ্মাসেতু দৃশ্যমান। রাস্তাঘাট থেকে শুরু করে সবকিছু হচ্ছে। আজ গ্রামে-গঞ্জেও প্রযুক্তি চলে গেছে। ইউনিয়নে বসে ডিজিটাল সেবা পাচ্ছেন, এখন আর শহরে আসতে হয়না। বরিশালের মানুষের আর অভাব থাকবে না।

ওবায়দুল কাদের আরো বলেন, একজন দুর্নীতে চ্যাম্পিয়ন, আর একজন সততায় চ্যাম্পিয়ন। আমাদের নেত্রী শেখ হাসিনা সততার কারণে বিশ্বে স্বীকৃতিপ্রাপ্ত নেতা। তাই বলুন আরেকবার দরকার শেখ হাসিনার সরকার। তাহলে যা হয়নি তা সবই হবে। বরিশালের মানুষের ঈমান ঠিক আছে, ওয়াদা করলে ঠিক রাখে।

দুপুর ২টার দিকে ঢাকার বকশীবাজারে স্থাপিত বিশেষ আদালতের বিচারক ড. মো. আখতারুজ্জামান জিয়া অরফানেজ ট্রাস্ট মামলার রায় ঘোষণা করেন। এ সময় উপস্থিত ছিলেন খালেদা জিয়া, মাগুরার সাবেক সংসদ সদস্য কাজী সলিমুল হক কামাল ও ব্যবসায়ী শরফুদ্দিন আহমেদ।

এ মামলায় মোট আসামি ছয়জন। তাঁদের মধ্যে তিনজন পলাতক। এই তিনজন হলেন বিএনপির জ্যেষ্ঠ ভাইস চেয়ারম্যান তারেক রহমান, প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ের সাবেক মুখ্য সচিব কামাল উদ্দিন সিদ্দিকী এবং বিএনপির প্রতিষ্ঠাতা জিয়াউর রহমানের ভাগ্নে মমিনুর রহমান।

বিএনপির চেয়ারপারসন ও সাবেক প্রধানমন্ত্রী খালেদা জিয়াকে পাঁচ বছরের সশ্রম কারাদণ্ড দিয়েছেন আদালত। এ ছাড়া বিএনপির সিনিয়র ভাইস চেয়ারম্যান তারেক রহমানসহ বাকি আসামিদের ১০ বছর করে কারাদণ্ড এবং দুই কোটি ১০ লাখ টাকা জরিমানা করা হয়েছে। রায় ঘোষণার পর পরই কড়া নিরাপত্তার মধ্যে সাবেক এ প্রধানমন্ত্রীকে পুরান ঢাকার পুরোনো কারাগারে নিয়ে যাওয়া হয়।