নাশকতার আশঙ্কায় অ্যাপভিত্তিক পরিবহনসেবা বন্ধ

বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার রায়কে ঘিরে সারাদেশেই থমথমে পরিস্থিতির সৃষ্টি হতে পারে এমন আশঙ্কা করে আজ বন্ধ ঘোষণা করা হয় মোবাইল ফোন অ্যাপ্লিকেশনভিত্তিক বেসরকারি যাত্রী পরিবহন সংস্থা ‘উবার’ ও ‘পাঠাও’।

উবার-পাঠাও বন্ধে আগের চেহায় ফিরেছে সিএনজি চালকরা। রাস্তার দূরুত্ব অনুযায়ী যেখানে ১২০ থেকে ১৫০ টাকা ভাড়া হয় সেখানে আজ সিএনজি চালকরা ভাড়া নিচ্ছেন দ্বিগুনের থেকেও বেশি।

এদিকে এর প্রভাবে রাজধানীতেও গণপরিবহন চলছে হাতে গোনা কয়েকটি। এছাড়া অল্প সময়েই জনপ্রিয়তা পাওয়া উবার-পাঠাওয়ের মতো পরিবহন সেবাও বন্ধ রয়েছে আজ।

আর এই সুযোগটিই লুফে নিয়েছেন সিএনজি চালকরা। উবার-পাঠাও চালু হওয়ার আগে যেভাবে তারা যাত্রীদের কাছ থেকে বেশি ভাড়া আদায় করতেন, আজ সেভাবেই সবার ‘গলা কাটছেন’ তারা।

রাজধানীর বিভিন্ন স্থানে দেখা গেছে, বাস চলাচল খুব কম থাকায় রাস্তা দাপিয়ে বেড়াচ্ছেন সিএনজি চালকরা। বিশেষ করে হাসপাতালগুলোর সামনে তাদের উপস্থিতি সবচেয়ে বেশি। সুযোগ বুঝে বিপদে পড়া মানুষদের কাছ থেকে বেশি ভাড়া আদায় করছেন তারা।

এর আগে গতকাল বুধবার উবার এক বিজ্ঞপ্তিতে জানায়, আমরা সেবা দিতে সাময়িক সমস্যার মুখোমুখি হচ্ছি। আশা করি, শিগগিরই সব ঠিক হয়ে যাবে। আপনারা আমাদের সঙ্গেই থাকুন।

মোটরসাইকেল শেয়ারিং অ্যাপ ‘পাঠাও’ খুদেবার্তায় গ্রাহকদের জানিয়েছে, বৃহস্পতিবার পাঠাওয়ের সেবা সাময়িক বন্ধ থাকবে। তবে পাঠাও ফুড ঢাকার কিছু নির্দিষ্ট স্থানে চালু থাকবে। সেবা চালু হওয়ার সঙ্গে সঙ্গে জানানো হবে।

এছাড়া বন্ধ আছে মোটরসাইকেল শেয়ারিং সেবা মুভ। খুদেবার্তায় তারা গ্রাহকদের জানিয়েছে, বৃহস্পতিবার তাদের রাইডসেবা থাকছে না। গ্রাহকরা চাইলে প্রিয়জনকে এই অ্যাপের মাধ্যমে ভ্যালেন্টাইন উপহার পাঠাতে পারবে।