ওআইসিভুক্ত ৫৭ দেশের মধ্যে সহযোগিতা বাড়াতে প্রধানমন্ত্রীর আহ্বান

পর্যটনশিল্পের বিকাশে বিশ্বের ইসলামী সহযোগিতা সংস্থা-ওআইসিভুক্ত ৫৭ দেশের মধ্যে সহযোগিতা বাড়ানোর আহ্বান জানিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। ঢাকায় প্রথমবারের মতো শুরু হওয়া ওআইসি সদস্য দেশের পর্যটনমন্ত্রীদের ১০ম সম্মেলন উদ্বোধনকালে এ আহ্বান জানান তিনি।

এ সময় পর্যটন খাতকে সামনে এগিয়ে নিতে প্রধানমন্ত্রী পূর্ণ সমর্থন দেয়ার কথা বলেন। তিনি বিশ্বে পর্যটনশিল্পের বিকাশে মুসলিম দেশগুলো একসঙ্গে কাজ করবে বলেও প্রত্যয় ব্যক্ত করেন।

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেছেন, ‘পর্যটন উন্নয়নের মাধ্যমে আন্তর্জাতিক সহযোগিতা বাড়বে। প্রতিবেশী দেশগুলোর সঙ্গে সম্পর্ক উন্নয়নে এই সম্মেলন ভূমিকা রাখবে। একইসঙ্গে এই খাতে সক্ষমতা বৃদ্ধি, জ্ঞান হস্তান্তর, পেশাগত দক্ষতা বৃদ্ধি, শক্তিশালী প্রাতিষ্ঠানিক অবকাঠামোকে অগ্রাধিকার দিয়ে কাজ করতে হবে।’

কক্সবাজারে আন্তর্জাতিক বিমানবন্দর হবে জানিয়ে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেন, ‘এর ফলে বিদেশি পর্যটকরা সরাসরি কক্সবাজারে যাওয়ার সুযোগ পাবেন। প্রাচ্য ও পাশ্চাত্যের মধ্যে সংযোগ তৈরি হবে।’

উদ্বোধনী বক্তব্যে প্রধানমন্ত্রী আরও বলেন, ‘বাংলাদেশ তার দায়িত্ব পালনকালে ওআইসি দেশগুলোর মধ্যে সংযোগ তৈরিতে দৃষ্টান্তমূলক কিছু অর্জন করতে পারবে বলে আমি বিশ্বাস করে এই সম্মেলনের প্রতি পূর্ণ সমর্থন ব্যক্ত করছি।’ মিনিস্টার্স সম্মেলনের নবম সভাপতিকে তিনি ধন্যবাদ জানিয়ে বলেন, ‘সব সদস্য দেশ বৃহত্তর সহযোগিতার মাধ্যমে আত্মউন্নয়নের দিকনির্দেশনা পাবে।’

মঙ্গলবার রাজধানীর সোনারগাঁও হোটেলে ওআইসির পর্যটনমন্ত্রীদের এ সম্মেলনের আনুষ্ঠানিক উদ্বোধন করেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। তিন দিনের এই সম্মেলনে ২৫ দেশের উচ্চপর্যায়ের শতাধিক প্রতিনিধি ও ১৫ দেশের পর্যটনমন্ত্রী অংশ নিয়েছেন। সম্মেলনে ইসলামী হেরিটেজ ও কালচার, রিলিজিয়াস ট্যুরিজম ও হালাল ট্যুরিজ এবং টেকসই উন্নয়নে পর্যটনের ভূমিকাবিষয়ক বিভিন্ন রাউন্ড টেবিল বৈঠক অনুষ্ঠিত হবে। বুধবার ঢাকা ঘোষণা ও টেকনিক্যাল ট্যুরের মধ্য দিয়ে এ সম্মেলন শেষ হবে।