সততাই একজন বিচারকের মূল শক্তি: প্রধান বিচারপতি

শপথ নেয়ার পরদিনই সুপ্রিম কোর্টে নিজ কার্যালয়ে এসেছেন নতুন প্রধান বিচারপতি সৈয়দ মাহমুদ হোসেন। আজ সকাল ৮টা ১০মিনিটে সুপ্রিম কোর্ট ভবনের মূল ফটকে আসলে নব নিযুক্ত প্রধান বিচারপতিকে অভ্যর্থনা জানান ভারপ্রাপ্ত রেজিস্ট্রার জেনারেলসহ সুপ্রিম কোর্ট প্রশাসনের কর্মকর্তারা।

প্রধান বিচারপতি সৈয়দ মাহমুদ হোসেন বলেছেন, আইনের শাসন প্রতিষ্ঠা ও প্রতিটি বিচারপ্রার্থী মানুষের ন্যায়বিচার নিশ্চিতে যা কিছু করা সম্ভব তা সবই করা হবে। সততাই হচ্ছে একজন বিচারকের মূল শক্তি আর জবাবদিহিতার জায়গা হচ্ছে তার বিবেকে। তাই শপথ অনুযায়ী বিচারকার্য পরিচালনা করলে বিচারকদের জন্য পৃথক আচরণ বিধির প্রয়োজন নিই।

আজ রবিবার অ্যাটর্নি জেনারেল ও সুপ্রিমকোর্ট আইনজীবী সমিতির দেওয়া এক সংবর্ধনা অনুষ্ঠানে দেশের ২২তম প্রধান বিচারপতি এসব কথা বলেন।

তিনি বলেন, সুপ্রিম কোর্ট যেন সংবিধানের কাঠামোর মধ্যে থেকে সংবিধান অনুযায়ী তার নিজ দায়িত্ব পালন করেন, সেটিও আমি নিশ্চিত করতে চেষ্টা করব। আমাদের এমনভাবে আদালতের ভাবমূর্তি গড়ে তুলতে হবে যেন আদালত প্রাঙ্গণে প্রবেশ করার সঙ্গে সঙ্গে শক্তিমান-দুর্বল, ধনী-গরিব, সকলের মধ্যে এই বিশ্বাস জন্মে যে তারা সকলেই সমান। এবং আদালতের কাছ থেকে শুধু আইন অনুযায়ী তারা ন্যায়বিচার পাবেন। এতে আদালতের প্রতি মানুষের আস্থা ও বিশ্বাস দৃঢ় হবে।

প্রধান বিচারপতি আরো বলেন, রাষ্ট্রের তিনটি অঙ্গ। এই ‍তিন অঙ্গের পারস্পরিক সহযোগিতার মাধ্যমে একটা দেশের উন্নয়ন সাধিত হয়। আর সমন্বয়ের অভাবে ব্যাহত হয় উন্নয়ন। এই তিনটি অঙ্গের মধ্যে সমন্বয় রক্ষার জন্য আমি সবসময় চেষ্টা করব।

একইসঙ্গে প্রধান বিচারপতি সুপ্রিমকোর্টের সকল বিচারপতিদের সংবিধান, আইন ও শফথ অনুযায়ী বিচার কাজ পরিচালনার আহ্বান জানান।