অ্যান্ড্রয়েড ডিভাইসে পর্ন দেখার ব্যাপারে সতর্কতা!

পর্ন আসক্তি যেমন আপনার মানষিক ও শারীরিক ভারসাম্য নষ্ট করতে পারে। তেমনি এই আসক্তি আপনাকে মহা বিপদে ফেলতে পারে। 

পর্ন বা নীল ছবি একটি সমাজের জন্য যথেষ্ট হুমকিস্বরুপ। পর্ন দেখার কারণেই যুবসমাজ নষ্ট হচ্ছে বলে অভিযোগ রয়েছে। এমনকি বাংলাদেশে গুগলও পর্ন বা নীল ছবির সার্চ সিস্টেম বন্ধ রেখেছে।

তাই অ্যান্ড্রয়েড ডিভাইসে পর্ন দেখার ব্যাপারে সতর্ক থাকার পরামর্শ দিচ্ছে রাশিয়ান সাইবার নিরাপত্তা সংস্থা ক্যাসপারস্কি ল্যাব। সংস্থার পক্ষ থেকে জানানো হয়েছে, আগের বছর ১২ লক্ষ অ্যান্ড্রয়েড ইউজার ম্যালওয়্যারে আক্রান্ত হয়েছেন। ২০১৭ সালে মোট ৪৯ লাখ অ্যান্ড্রয়েড ডিভাইস ম্যালওয়্যার আক্রান্ত হয়। এর মধ্যে প্রায় এক চতুর্থাংশ আক্রান্ত হয়েছেন পর্ন-ছদ্মবেশী ম্যালওয়্যারে।

ইউজারকে ম্যালওয়্যারে ক্লিক করাতে পর্নের ব্যবহার খুবই সাধারণ কৌশল। ২০১৭ সালে ভুয়ো পর্ন অ্যাপ ব্যবহার করে ১০ লাখের বেশি অ্যান্ড্রয়েড ডিভাইসে হামলা চালিয়ে ৮৯২০০০ মার্কিন ডলার হাতিয়ে নিয়েছে হ্যাকার দল। আর ৯০ হাজার বট ব্যবহার করে ট্যুইটারে পর্ন দিয়ে স্প্যাম ছড়ানোর ঘটনাও দেখা গেছে ২০১৭ সালে।

ক্যাসপারস্কির গবেষক জানিয়েছেন, আগের বছর ডেস্কটপে পর্ন ম্যালওয়্যারের সংখ্যা দেখা গেছে তিন লাখের বেশি। অ্যান্ড্রয়েড ডিভাইসের জন্য ২৩ ধরনের ম্যালওয়্যার পেয়েছেন তারা। এর মধ্যে ট্রোজান ভাইরাসও পাওয়া গেছে, যা ইউজারের ব্যাংকের অ্যাকাউন্টও হ্যাক করছে বলে দাবি গবেষকদের।

অ্যান্ড্রয়েড ডিভাইসে বেশির ভাগ ক্ষেত্রে ট্রোজান ম্যালওয়্যারগুলোকে ‘ক্লিকার’ হিসেবে ব্যবহার করা হয়। এতে ক্লিক করলে নতুন পেজ খোলে এবং গ্রাহকের অজান্তেই বিজ্ঞাপনে ক্লিক করা হয়। এতে বিজ্ঞাপন থেকে আয় করতে পারেন হ্যাকাররা। আর এতে ইউজারের ডিভাইসের ব্যাটারি খরচ হয়।

ক্যাসপারস্কি ল্যাব জানায়, বেশির ভাগ র‍্যানসমওয়্যার একেবারে ভুয়া পর্ন অ্যাপ হিসেবে আসে। এবং অর্থ না দিলে ডিভাইসের পাসওয়ার্ড পাল্টে দেয়।