পর্তুগালে বাংলাদেশ দূতাবাসের সঙ্গে প্রবাসী ব্যবসায়ীদের মতবিনিময়

‘উন্নয়নের রোল মডেল, শেখ হাসিনার বাংলাদেশ’ এই প্রতিপাদ্যকে সামনে রেখে শুধু দেশে নয়- প্রবাসী ব্যবসায়ীদের দেশে বিনিয়োগ এবং প্রবাসের ব্যবসায়িক সমস্যাগুলোর সমাধান, ব্যবসাবান্ধব পরিবেশ গঠনের লক্ষ্যে বাংলাদেশ দূতাবাস লিসবন পর্তুগাল আয়োজনে মতবিনিময় সভা হয়েছে। দেশের অর্থনীতির উন্নয়নে প্রবাসী ব্যবসায়ীদের কাছে তুলে ধরা প্রচেষ্টায় প্রবাসী ব্যবসায়ীদের নিয়ে এ সভা বৃহস্পতিবার লিসবনের বাংলাদেশ হাউজে দূতাবাসের দ্বিতীয় সচিব হাসান তৌহিদের ও প্রশাসনিক কর্মকর্তা ওয়েজ উদ্দিনের সমন্বয়ে ও সঞ্চলনায় অনুষ্ঠিত হয়।

মতবিনিময় সভায় সভাপতিত্ব করেন পর্তুগালে নিযুক্ত বাংলাদেশের রাষ্ট্রদূত রুহুল আলম সিদ্দিকী। সভায় যোগ দেন পর্তুগালের বিভিন্ন শহরে বসবাসরত শতাধিক প্রবাসী ব্যবসায়ী। মতবিনিময় সভায় আসা ব্যবসায়ীদের স্বাগত জানান, দূতাবাসের সহকারী কনস্যুলার মো. নূর উদ্দিন এবং প্রশাসনিক কর্মকর্তা মো. সাহাব উদ্দিন।

মতবিনিময় সভায় আগত ব্যবসায়ীরা তাদের পরিচয় তুলে ধরেন। সেই সঙ্গে প্রবাসের মাঝে বিভিন্ন ব্যবসায়িক সমস্যার কথাগুলো তুলে ধরার পাশাপাশি বাংলাদেশ বিমানবন্দরে প্রবাসীদের হয়রানি, ঢাকায় পর্তুগাল দূতাবাস স্থাপন, পর্তুগালে বেড়ে উঠা বাংলাদেশি নতুন প্রজন্মের জন্য একটি বাংলা স্কুল ও লিসবনের বাঙালি অধ্যুষিত রুয়া দো বেনফরমোসো সড়কটিকে রুয়া দো বাংলাদেশ নামকরণের দাবি জানান।

মতবিনিময় সভায় রাষ্ট্রদূত রুহুল আলম সিদ্দিকী বলেন, ’৭১-এ সদ্য স্বাধীন দেশটিকে অনেকেই তলাবিহীন ঝুড়ি বলে অবহিত করেন। কিন্তু কালের পরিক্রমায় বাংলাদেশকে একটি উন্নত রাষ্ট্রে পরিণত করতে সরকার কাজ করে যাচ্ছে। তিনি আরও বলেন, প্রতিটি প্রবাসী এক একজন রেমিটেন্সযোদ্ধা এবং বাংলাদেশি অ্যাম্বাসেডর। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে সরকারের আমলে সূচিত উন্নয়নের চিত্র তুলে ধরেন রাষ্ট্রদূত। সেই সঙ্গে প্রবাসী ব্যবসায়ীদের বিভিন্ন সমস্যা সমাধানের জন্য পর্তুগালের বিভিন্ন মন্ত্রণালয়ের সঙ্গে যোগাযোগ করে সমাধানের আশা প্রকাশ করেন।

সবশেষে দূতাবাসের পক্ষ থেকে পর্তুগালের বিভিন্ন শহর থেকে আগত ব্যবসায়ীদের সম্মানে দেশীয় নৈশভোজের আয়োজন করা হয়।