বিএনপির কেন্দ্রীয় নেতা গয়েশ্বর চন্দ্র রায় গ্রেফতার

বাংলাদেশে বিরোধী দল বিএনপির কেন্দ্রীয় নেতা গয়েশ্বর চন্দ্র রায়কে মঙ্গলবার রাতে ঢাকার গুলশান এলাকা থেকে গ্রেফতার করা হয়েছে। পুলিশ বলছে, ঢাকায় আজ মঙ্গলবার সহিংসতা করার অভিযোগে তাকে আটক করা হয়েছে। ডিএমপির পুলিশ কমিশনার আছাদুজ্জামান মিয়া বলেছেন, বিএনপির নেতাকর্মীরা কার্জন হলের সামনে পুলিশের গাড়িতে হামলা চালায় এবং পুলিশের হাতে আটক দু’জনকে তারা ছিনিয়ে নেয়।

“তাদের হামলায় সাতজন পুলিশ আহত হয়েছে। তারা পুলিশের দুই সদস্যের অস্ত্র কেড়ে নিয়ে ভাঙচুর করে। সহিংসতার অভিযোগে বিএনপির কয়েকজন নেতার বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করা হয়েছে। এই মামলায় গয়েশ্বর চন্দ্র রায়কে গ্রেফতার করা হয়েছে,” বলেন পুলিশ কমিশনার।

বিএনপির নেতা রুহুল কবীর রিজভী বলেন, গুলশানে বিএনপির চেয়ারপার্সনের কার্যালয়ে বৈঠকের পর সেখান থেকে গাড়িতে করে ফিরে যাওয়ার সময় পুলিশ দলের স্থায়ী কমিটির এই সদস্যকে তুলে নিয়ে গেছে। বর্তমানে তিনি পুলিশের হেফাজতে রয়েছেন।

মঙ্গলবার জিয়া চ্যারিটেবল ট্রাস্ট দুর্নীতির মামলায় আদালতে হাজির হওয়ার পর খালেদা জিয়া বিকেলে বাসায় ফেরার সময় মামলা প্রত্যাহারের দাবিতে এবং সরকার-বিরোধী শ্লোগান দিয়ে বিএনপির নেতাকর্মীরা কার্জন হলের সামনে রাস্তায় বিক্ষোভ করেন।

পুলিশ জানিয়েছে, সেখানে বিক্ষোভকারীরা পুলিশের ভ্যানগাড়িতে আক্রমণ করে আটক বিএনপির দু’জন নেতাকে পুলিশের কাছ থেকে ছিনিয়ে নেয়। পরে পুলিশ বিএনপির ৫০জনেরও বেশি নেতাকর্মীকে আটক করেছে।