শুরুতেই উইকেটের পতন, চাপে বাংলাদেশ

শুরুতেই আউট এনামুল। তৃতীয় ওভারে উইকেট হারাল বাংলাদেশ। শূন্য রানে বোল্ড হয়ে ফিরলেন এনামুল হক। সুরঙ্গা লাকমলের বলে তেমন কিছু ছিল না। অফ স্টাম্পের বাইরের সোজা বলটি স্টাম্পে টেনে আনেন এনামুল। শরীর থেকে অনেক দূরের বল খেলতে গিয়ে তালগোল পাকান এই ওপেনার। এনামুল ফেরার সময়ে বাংলাদেশের সংগ্রহ ৫/১। 

মুখোমুখি হওয়া প্রথম বলে চার দিয়ে শুরু করেন সাকিব আল হাসান। এক বল পর আবার তুলে নেন বাউন্ডারি।

৩ ওভার শেষে বাংলাদেশের স্কোর ১৩/১।

শ্রীলঙ্কা দলে দুই পরিবর্তন

বাংলাদেশের বিপক্ষে প্রাথমিক পর্বের শেষ ম্যাচে শ্রীলঙ্কা দলে এসেছে দুটি পরিবর্তন। ত্রিদেশীয় সিরিজে প্রথমবারের মতো খেলছেন ওপেনার দানুশকা গুনাথিলকা। দলে ফিরেছেন পেসার দুশমন্থ চামিরা।

চোটের জন্য টুর্নামেন্ট শেষ হয়ে গেছে ওপেনার কুসল মেন্ডিসের। চোটের জন্য একাদশে নেই পেসার নুয়ান প্রদিপ।

শ্রীলঙ্কা দল: উপুল থারাঙ্গা, দানুশকা গুনাথিলকা, কুসল মেন্ডিস, দিনেশ চান্দিমাল, নিরোশান ডিকভেলা, আসেলা গুনারত্নে, থিসারা পেরেরা, আকিলা দনঞ্জয়া, লাকশান সান্দাকান, দুশমন্থ চামিরা, সুরঙ্গা লাকমল।

প্রায় তিন বছর পর একাদশে হাসান

আবুল হাসান শেষ ওয়ানডে খেলেছিলেন ২০১৫ সালের এপ্রিলে, পাকিস্তানের বিপক্ষে। এরপর আর দেশের হয়ে খেলার সুযোগ হয়নি এই অলরাউন্ডারের। এবার সুযোগ পেলেন শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে প্রাথমিক পর্বের শেষ ম্যাচে।

জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে ব্যাটে-বলে দারুণ পারফরম্যান্সের পরও বাদ পড়েছেন বাঁহাতি স্পিনার সানজামুল ইসলাম। শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে বাংলাদেশের প্রথম ম্যাচে খেলেছিলেন পেস বোলিং অলরাউন্ডার মোহাম্মদ সাইফ উদ্দিন।

বাংলাদেশ দল: তামিম ইকবাল, এনামুল হক, সাকিব আল হাসান, মুশফিকুর রহিম, মাহমুদউল্লাহ, সাব্বির রহমান, নাসির হোসেন, মাশরাফি বিন মুর্তজা, আবুল হাসান, মুস্তাফিজুর রহমান, রুবেল হোসেন।

টস জিতে ব্যাটিংয়ে বাংলাদেশ

টানা চার ম্যাচে টস জিতলেন মাশরাফি বিন মুর্তজা। জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে প্রথম ম্যাচে ফিল্ডিং নিয়েছিলেন বাংলাদেশ অধিনায়ক। এনিয়ে টানা তিন ম্যাচে নিলেন ব্যাটিং।

শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে প্রথম দেখায় আগে ব্যাটিং করে বাংলাদেশ পেয়েছিল ওয়ানডেতে তাদের সবচেয়ে বড় জয়। ৩২১ রানের লক্ষ্য দিয়ে জিতেছিল ১৬৩ রানে।

একটি প্রথমের সন্ধানে বাংলাদেশ

শ্রীলঙ্কাকে কখনও টানা দুই ম্যাচে হারাতে পারেনি বাংলাদেশ। মাশরাফি বিন মুর্তজার দলের সামনে লঙ্কানদের টানা দুই ম্যাচে হারানোর সুযোগ। দুই দলের প্রথম দেখায় স্বাগতিকরা জেতে ১৬৩ রানে।

বাংলাদেশের টেকনিক্যাল ডিরেক্টর খালেদ মাহমুদের দাবি, শ্রীলঙ্কা ম্যাচকে ফাইনালের মতো গুরুত্ব দিচ্ছে বাংলাদেশ। মিডল অর্ডারের ব্যাটিংয়ে উন্নতির দিকে নজর থাকবে স্বাগতিকদের।

ফাইনালে চোখ শ্রীলঙ্কার

বাংলাদেশের বিপক্ষে জিতলে ফাইনালে খেলবে শ্রীলঙ্কা। কম ব্যবধানে হারলেও স্বাগতিকদের সঙ্গে ফাইনালে খেলার সুযোগ থাকবে দলটির। শ্রীলঙ্কার ভারপ্রাপ্ত অধিনায়ক দিনেশ চান্দিমাল জানান, রান রেটের হিসাবে যেতে চান না তারা। জিতেই নিশ্চিত করতে চান ফাইনাল।

রান রেটে জিম্বাবুয়ের (-১.০৮৭) চেয়ে খানিকটা এগিয়ে (-০.৯৮৯) শ্রীলঙ্কা।

৩ ম্যাচে ১৫ পয়েন্ট নিয়ে সবার ওপরে আগেই ফাইনাল নিশ্চিত করা বাংলাদেশ। শ্রীলঙ্কা ও জিম্বাবুয়ের পয়েন্ট ৪ করে।