মুক্তি পেল ‘পদ্মাবত’, সিনেমা হলগুলিতে কড়া নিরাপত্তা

হাজারো ঘাত প্রতিঘাত পেরিয়ে অবশেষে মুক্তি পেল সঞ্জয় লীলা বনশালীর বহু বিতর্কিত ছবি পদ্মাবত। ছবি মুক্তির আগেই দেশের নানা জায়গায় ছড়িয়ে পড়েছে সহিংস বিক্ষোভ। রাজপুত কার্ণি সেনা হুমকি দিয়েছে, পদ্মাবতের মুক্তি তারা যে কোনও মূল্যে রুখবে।

ছবিতে ইতিহাস বিকৃত হয়েছে অভিযোগে শপিং মনে ভাঙচুর চালিয়েছে কয়েকটি সংগঠন। পোড়ানো হয়েছে গাড়ি এমনকী স্কুল পড়ুয়া ভর্তি বাসেও ঢিল ছোঁড়া হয়েছে বলে অভিযোগ। সিনেমা হল মালিক ও সাধারণ জনতাকে সাবধান করা হয়েছে ছবিটির প্রদর্শন ও তা গিয়ে দেখার ব্যাপারে। পরিস্থিতি দেখে মাল্টিপ্লেক্স অ্যাসোসিয়েশন অফ ইন্ডিয়া জানিয়েছে, রাজস্থান, গুজরাত, মধ্য প্রদেশ ও গোয়ায় ছবিটি প্রদর্শন করবে না তারা।

অভিযোগ, গতকাল গুরুগ্রামের জিডি গোয়েঙ্কা স্কুলের বাসে হামলা চালায় কার্ণি সেনার গুন্ডারা। এই পরিস্থিতিতে আজ বন্ধ রাখা হয়েছে শহরের কয়েকটি স্কুল। রবিবার পর্যন্ত বন্ধ থাকবে স্কুলগুলি।

মঙ্গলবার গুজরাতে অগ্নিসংযোগ ও ভাঙচুরের পর গতকালও হরিয়ানা, উত্তর প্রদেশ ও রাজস্থানের কিছু এলাকায় সহিংস বিক্ষোভ হয়েছে। বিক্ষোভকারীরা রাস্তা আটকে বাসে আগুন ধরিয়ে দেয়। বিক্ষোভকারীরা গুরুগ্রামের বজিরপুর-পতৌদি রোডের ওপর অগ্নিসংযোগ করে। দিল্লি-জয়পুর হাইওয়ে আটকে দেয় তারা। একইভাবে আটকে দেওয়া হয় গুরুগ্রামের সোহনা রোড, ছোঁড়া হয় ইটপাটকেল। আগুন দেওয়া হয় একটি বাসে।

উত্তর প্রদেশের মিরাটের একটি মলে পদ্মাবতীর বিরোধিতায় বিক্ষোভ দেখানো হয়। মথুরায় বিক্ষোভকারীরা আটকে দেয় ট্রেন। মধ্য প্রদেশের হোসঙ্গাবাদেও কার্ণি সেনা সদস্যরা অশান্তি ছড়ানোর চেষ্টা করে। গাড়িতে আগুন দিয়ে, সিনেমা হলের সামনে বিক্ষোভ দেখিয়ে ছবি প্রদর্শন রোখার চেষ্টা করে তারা। রাজস্থানের চিতোরগড় দুর্গের কাছে হয় বিরোধ প্রদর্শন। জম্মুর ইন্দ্রা সিনেমা হলের টিকিট কাউন্টারে ইট ছুঁড়ে কাচ ভেঙে দেওয়া হয়েছে।