নারায়ণগঞ্জের ঘটনার বিরুদ্ধে সাংগঠনিক ব্যবস্থা

নারায়ণগঞ্জ শহরে হকারদের ঠেকাতে রাস্তায় নামার পর মেয়র আইভী ও শামীম ওসমানের সমর্থক হকারদের মধ্যে সংঘর্ষ ও গোলাগুলির ঘটনা ঘটেছে। এতে মেয়র আইভীসহ আহত হয়েছেন অর্ধশতাধিক। নারায়ণগঞ্জের ঘটনায় যারা দলের অভ্যন্তরীণ কোন্দল জনসম্মুখে এনে ভাবমূর্তি নষ্ট করেছেন তাদের বিরুদ্ধে সাংগঠনিক ব্যবস্থা নেওয়া হবে বলে জানিয়েছেন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের।

বুধবার (১৭ জানুয়ারি) বেলা ১২টায় ধানমন্ডি ৩ নম্বরে আওয়ামী লীগ সভাপতি শেখ হাসিনার রাজনৈতিক কার্যালয়ে একথা বলেন তিনি। এ সময় সব পক্ষকে ধৈর্য ধরার আহ্বান জানান তিনি।

ওবায়দুল কাদের বলেন, আমি রাতেই দলের প্রধান ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সঙ্গে বিষয়টি নিয়ে কথা বলেছি। পরে শামীম ওসমান ও সেলিনা হায়াৎ আইভীর সঙ্গেও কথা বলেছি। আজ সকালেও তাদের সঙ্গে কথা বলেছি। স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর সঙ্গেও কথা বলেছি। আজই স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী তাদের দুজনকে ডাকবেন। যারা প্রকাশ্যে অস্ত্রবাজি করেছেন, গোলাগুলিতে অংশ নিয়েছেন, তাদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

সাংগঠনিক ভাবেও তাদের ডাকা হবে। এ ঘটনায় দলের ভাবমূর্তি ক্ষুণ্ন হয়েছে বলে জানান আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক। ঢাকা উত্তর সিটি নির্বাচন বন্ধে আদালতের স্থগিতাদেশে সরকারের কোনো যোগসাজস নেই বলেও জানান ওবায়দুল কাদের। আওয়ামী লীগ এমন নোংরা রাজনীতি করে না বলেও মন্তব্য করেন তিনি।

ওবায়দুল কাদের বলেন, আমরা এ নির্বাচনে কাউন্সিল প্রার্থীদের নাম ঘোষণার জন্য আপনাদের ডেকেছিলাম। কিন্তু এতে আদালতের অবমাননা হতে পারে বলে তা বাদ দিয়েছি। এক প্রশ্নর জবাবে ওবায়দুল কাদের বলেন, ছাত্রলীগের নেতৃত্ব পাওয়ার বয়স ২৯ বছর নির্ধারণ হয়েছে।