আদালতের ১৪৪ ধারা অমান্য করে আওয়ামীলীগের কার্যালয় ভাংচুড়

নওগাঁর মহাদেবপুরে আদালতের ১৪৪ ধারা অমান্য করে উপজেলা আওয়ামীলীগের অস্থায়ী কার্যালয় ভাংচুড় ও বুলডোজার দিয়ে ৫০ মেহগুনির গাছ উপড়ে ফেলে জমি দখলের চেষ্টার অভিযোগ পাওয়া গেছে। পুলিশের নিষেজ্ঞা উপেক্ষা করে প্রতিপক্ষ জমি দখলের চেষ্টা করে এতে এক উত্তেজিত পরিবেশ সৃষ্টি হয়। খবর পেয়ে পুলিশ উক্ত জমিতে গিয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণ করে।

জানা যায়, নওগাঁর মহাদবেপুর সদরে বুলবুল সিনেমা হল সংলগ্ন এলাকার মৃত ইব্রাহিম বিশ্বাসের ছেলে সামসুজ্জামান বিশ্বাস তার বাবা কাছ থেকে ২০০৬ সালে আমমোক্তার নামা মূলে জমি প্রপ্ত হইয়া ভোগ দখল করিয়া আসিতেছিলো। এই সম্পত্তিতে তার বিভিন্ন ব্যবসা প্রতিষ্ঠান ও দীর্ঘদিন থেকে উপজেলা আওয়ামীলীগের অস্থায়ী কার্যালয় ছিলো। ওই সম্পত্তি তার বোন ইসমত আরা বিশ্বাস, শামিম আরা বিশ্বাস ও ভাই জাফর ইকবাল বিশ্বাস তাদের দাবী করে দখল করতে যায়। এ ঘটনায় সামসুজ্জামান বিশ্বাস আদালতে একটি মামলা করলে আদালত ১৪৪ ধারা জরি করে।

মঙ্গলবার সকালে উক্ত ইসমত আরা বিশ্বাস, শামিম আরা বিশ্বাস ও জাফর ইকবাল বিশ্বাস আদালতের আদেশ অমান্য করে উল্লেখিত জমি দখলের চেষ্টা করে। এসময় ওই জমিতে থাকা উপজেলা আওয়ামীলীগের অস্থায়ী কার্যালয় ও তার ব্যাক্তিগত অফিসসহ ৫০ টি মেহগুনি গাছ বুলডোজার দিয়ে তছনছ করে দেয়।

সামসুজ্জামান বিশ্বাস জানান, তার বাবা কাছ থেকে ২০০৬ সালে এই জমি প্রপ্ত হয়ে ভোগ দখল করে আসছে। কিন্তু তার ভাই ও দুই বোন জোরপূর্বক তার জমি দখলে নিতে চায়। এরি প্রেক্ষিতে আমি আদালতে একটি মামলা দায়ের করলে আদালত ১৪৪ ধারা জারি করে। কিন্তু তারা এই আদেশকে অমান্য করে মঙ্গলবার জোরপূর্বক ভাংচুড় ও দখলের চেষ্টা চালায়। আমি আদালতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। আদালত যে আদেশ দিবে তা আমি মেনে নিবো।

জাফর ইকবাল বিশ্বাস জানান, ওই জমি আমার মা ও বোনদের তারা তাদের জমি বুঝিয়ে নিতে অবৈধ্য স্থাপনা ও কিছু গাছ উচ্ছেদ করেছেন। এতে দোশের কিছু দেখছিনা আর আমি এসবের মধ্যে কোন ভাবেই জড়িত না।

এ বিষয়ে মহাদেবপুর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মিজানুর রহমান জানায়, প্রতিপক্ষকে কাজ করতে নিষেধ করা হয়েছে। জমিতে ১৪৪ ধারা জারি থাকায় উক্ত জমিতে কাউকে প্রবেশ করতে দেয়া হবে না।

এ.কে.সাজু । নওগাঁ প্রতিনিধি