বাংলাদেশ প্রিমিয়ার লিগে ফরাশগঞ্জের কাছে হারল শেখ জামাল

প্রথম পর্বে ফরাশগঞ্জকে ৫-০ গোলে উড়িয়ে দেওয়া শেখ জামাল ২২ ম্যাচে ১৪ জয় ও পাঁচ ড্রয়ে ৪৭ পয়েন্ট নিয়ে লিগ শেষ করল। চতুর্থ জয় পাওয়া ফরাশগঞ্জ ১৭ পয়েন্ট নিয়ে তলানি থেকে উঠে এসেছে একাদশ স্থানে। ফরাশগঞ্জের অবনমনের বিষয়টি নির্ভর করছে রহমতগঞ্জ-সাইফ স্পোর্টিংয়ের আগামী শনিবারের ম্যাচের ওপর। ১৫ পয়েন্ট রহমতগঞ্জের।

চেনা শেখ জামাল ধানমণ্ডি ক্লাবকেও খুঁজে পাওয়া গেলো না বাংলাদেশ প্রিমিয়ার লিগের শেষ ম্যাচে। নিষ্প্রাণ খেলে ফরাশগঞ্জ স্পোর্টিং ক্লাবের কাছে ৩-১ ব্যবধানে হেরেছে আগেই রানার্সআপ হওয়া দলটি। বঙ্গবন্ধু জাতীয় স্টেডিয়ামে বৃহস্পতিবার ম্যাচের ২৪তম মিনিটে এগিয়ে যায় ফরাশগঞ্জ। মোহাম্মদ লিংকনের বাড়ানো বল ধরে আক্রমণে ওঠা নাইজেরিয়ান ফরোয়ার্ড চিনেডু ম্যাথিউ কোনাকুনি শট জালে জড়ায়। চিনোডুর গায়ের সঙ্গে সেঁটে থাকা ডিফেন্ডার আনিসুর আলম ও গোলরক্ষক মোহাম্মদ নাইম প্রতিরোধের কোনো চেষ্টাই করেননি।

চার মিনিট পর স্পট কিক থেকে চিনেডুর গোলে ব্যবধান দ্বিগুণ করে নেয় ফরাশগঞ্জ। ডি বক্সের মধ্যে নাইজেরিয়ার এই ফরোয়ার্ডকে গোলরক্ষক নাইম ফাউল করলে পেনাল্টির বাঁশি বাজিয়েছিলেন রেফারি। ৩৫তম মিনিটে স্কোরলাইন ৩-০ করে নেয় ফরাশগঞ্জ। চিনেডুর বাড়ানো বল ধরে শেখ জামালের ডিফেন্ডারদের নিষ্প্রভতার সুযোগ নিয়ে গোল করেন মোহাম্মদ আলমগীর।

দ্বিতীয়ার্ধেও গা-ছাড়া ফুটবল খেলা শেখ জামাল গোলের তেমন কোনো সুযোগই তৈরি করতে পারেনি। লিগে ১৫ গোল করা রাফায়েল ওডোইনকে ছাড়া খেলতে নামা দলটি তাকিয়ে ছিল সলোমন কিংয়ের দিকে। ১৪ গোল করা গাম্বিয়ার এই ফরোয়ার্ড ক্রসবার উঁচিয়ে শট মেরে সুযোগ নষ্ট করেছেন।

৮৯তম মিনিটে স্পট কিক থেকে লক্ষ্যভেদ করে ব্যবধান কমান সলোমন। ক্লাব সতীর্থ রাফায়েলের সঙ্গে ১৫ গোল নিয়ে যৌথভাবে শীর্ষে রয়েছেন গাম্বিয়ার এই ফরোয়ার্ড।