আগামী ২৮ ফেব্রুয়ারি পর্যন্ত চলবে জাতীয় সংসদের শীতকালীন অধিবেশন

জাতীয় সংসদের শীতকালীন অধিবেশন রোববার বিকেল ৪টায় শুরু হয়েছে। স্পিকার ড. শিরীন শারমিন চৌধুরীর সভাপতিত্বে শুরু হওয়া ১৯তম এ অধিবেশনে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা, বিরোধীদলীয় নেতা বেগম রওশন এরশাদ, জাতীয় পার্টির চেয়ারম্যান হুসেইন মুহাম্মদ এরশাদসহ অধিকাংশ এমপি উপস্থিত রয়েছেন। শীতকালীন এ অধিবেশন ২৮ ফেব্রুয়ারি পর্যন্ত চলবে বলে কার্য উপদেষ্টা কমিটির বৈঠকে সিদ্ধান্ত হয়েছে।

সংসদের অধিবেশন শুরুর এক ঘণ্টা আগে এ কার্য উপদেষ্টা কমিটির বৈঠক শুরু হয়। বৈঠকের সিদ্ধান্ত অনুযায়ী প্রতিদিন বিকেল সাড়ে ৪টায় সংসদের বৈঠক শুরু হবে। আর রাষ্ট্রপতির ধন্যবাদ প্রস্তাবের ওপর ৪৫ ঘণ্টা আলোচনা চলবে। তবে প্রয়োজনবোধে স্পিকার অধিবেশনের সময় কমাতে বা বাড়াতে পারবেন।

প্রসঙ্গত, সংবিধান অনুযায়ী বছরের প্রথম অধিবেশন শুরুর দিন রাষ্ট্রপতি সংসদে সরকারের বিভিন্ন উন্নয়নমূলক কর্মকাণ্ড তুলে ধরে বক্তব্য দেন। এরপর সেই ভাষণের ওপর ধন্যবাদ প্রস্তাব জানাতে সাধারণ আলোচনা করেন এমপিরা।

অধিবেশনের শুরুতেই প্রথমে সভাপতিমণ্ডলীর মানোয়ন দেয়া হয়েছে। তারা হলেন কর্নেল ফারুক খান (গোপলগঞ্জ-১), পঞ্চনন বিশ্বাস (খুলনা-১), এমবিএম মোজাম্মেল হক (শরীয়তপুর-১) ফখরুল ইমাম (ময়মনসিংহ-৮), সৈয়দা সাইদ আহমেদ (মৌলভীবাজার-৩)।

সংসদে স্পিকার ও ডেপুটি স্পিকারের অনুপস্থিতে এ এমপিরা বৈঠকে সভাপতিত্ব করবেন। এরপর শোক প্রস্তাব আনা হয়েছে। বর্তমান সংসদের দুজন এমপি মারা যাওয়ায় সংসদের রেওয়াজ অনুযায়ী শোক প্রস্তাব এনে এ বিষয়ে আলোচনার পর সংসদের বৈঠক কিছুক্ষণের জন্য মুলতবি করা হয়। এরপর রাষ্ট্রপতি মো. আবদুল হামিদ ভাষণ দেবেন।