অবশেষে রাজনীতিতে নামার ঘোষণা দিল রজনীকান্ত

তামিল চলচ্চিত্রের ‘বিগ স্টার’ রজনীকান্ত অবশেষে রাজনীতিতে অংশ নেয়ার ঘোষণা দিয়েছেন। রোববার তিনি বলেছেন, শিগগিরই নতুন রাজনৈতিক দল গড়বেন তিনি। তামিল নাড়ুর রাজনীতিতে তার এই ঘোষণা নতুন নাটকীয়তা যোগ করেছে। এই একই রাজ্যের রাজনীতিতে যোগ দিয়ে মুখ্যমন্ত্রীর চেয়ারে বসেছিলেন দেশটির জনপ্রিয় প্রয়াত অভিনেত্রী জয়ললিতাও।

ভারতীয় অটোমোবাইল সামগ্রী রফতানির অন্যতম ঘাঁটি তামিল নাড়ু। গত বছরের ডিসেম্বরে মুখ্যমন্ত্রী জয়রাম জয়ললিতার মৃত্যুর পর রাজনৈতিক অস্থিতিশীলতা দেখা দেয় ভারতের দক্ষিণাঞ্চলের এই রাজ্যে। রাজনীতিতে যোগ দেয়ার আগে জয়ললিতা ছিলেন দেশটির ব্যাপক জনপ্রিয় অভিনেত্রী।

ভক্তদের কাছে ‘সুপারস্টার’ হিসেবে পরিচিত রজনীকান্ত এমন এক সময়ে রাজনীতিতে নামার ঘোষণা দিলেন যখন দেশটির প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি দক্ষিণাঞ্চলের এই রাজ্যের দিকে মনযোগ দিয়েছেন; গত কয়েক দশক ধরে আঞ্চলিক দুটি রাজনৈতিক দল তামিলনাড়ুর শাসন-ক্ষমতায় রয়েছে।

গত প্রায় পাঁচ দশক ধরে দুটি রাজনৈতিক দলকে বেছে নিয়েছেন তামিল নাড়ুর জনগণ। এই দুটি আঞ্চলিক রাজনৈতিক দল বর্ণবাদ বিরোধী সামাজিক ন্যায়বিচার ও ধর্মনিরপেক্ষতাকে তাদের মূল মতবাদ হিসেবে প্রচার করে আসছে। ২০১৬ সালে তামিল নাড়ুর নির্বাচনে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির রাজনৈতিক দল ভারতীয় জনতা পার্টি (বিজেপি) কোনো আসনেই জয়ের মুখ দেখেনি। ২০২১ সালে এই রাজ্যের পরবর্তী নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে।

রোববার রজনীকান্ত বলেছেন, ‘আমি জাতি অথবা ধর্মীয় অনুকরণ ছাড়াই আধ্যাত্মিক রাজনীতি করবো। যদি আমি ক্ষমতায় আসতে পারি এবং তিন বছরের মধ্যে কাঙ্ক্ষিত লক্ষ্যে পৌঁছাতে ব্যর্থ হই, তাহলে আমি পদত্যাগ করবো।’

অল্প কয়েকটি হিন্দি সিনেমায় কাজ করেছেন জনপ্রিয় এই অভিনেতা। রজনীকান্ত অভিনীত সিনেমা মুক্তির আগেই ভক্তদের মাঝে ব্যাপক উন্মাদনা দেখা যায়। তামিল সিনেমায় অধিকাংশ সময়ই তাকে দেখা যায় জনগণের রক্ষক হিসেবে। কিন্তু অনেকেই বলছেন, রাজনীতিতে সেটি হবে ভিন্ন।

রজনীকান্তের রাজনীতিতে আসার ঘোষণা নিয়ে গণমাধ্যমের উন্মাদনাকে বড় করে দেখছেন বিজেপি নেতা সুব্রাহ্মনিয়া স্বামী। সাত কোটিরও বেশি মানুষের আবাস ভারতের দক্ষিণাঞ্চলীয় এই প্রদেশে। অনেক সময় তামিল নাড়ুকে ‘ডেট্রয়েট অব এশিয়া’ও বলা হয়। বিলাসবহুল গাড়িনির্মাতা প্রতিষ্ঠান বিএমডব্লিউ, দাইমলার, হুন্দাই, ফোর্ড, নিসান ও রিনাল্টের মতো নামী-দামি সব প্রতিষ্ঠানের কারখানা রয়েছে তামিল নাড়ুতে।