‘স্বাস্থ্য সেবায় ফিজিওথেরাপিস্টদের সমান গুরুত্ব দিতে হবে’

স্বাস্থ্য সেবায় নিয়োজিত অন্য বিশেষজ্ঞ চিকিৎসকদের মতো ফিজিওথেরাপিস্টদেরও সমান গুরুত্ব দেয়ার আহ্বান জানিয়েছেন বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার দক্ষিণ-পূর্ব এশিয়ার অটিজমবিষয়ক শুভেচ্ছা দূত সায়মা ওয়াজেদ হোসেন। শুক্রবার রাজধানীর কৃষিবিদ ইনস্টিটিউশন মিলনায়তনে রিহ্যাবিলেটেশন প্রফেশনালদের জন্য বাংলাদেশ ফিজিওথেরাপি অ্যাসোসিয়েশন আয়োজিত দুই দিনব্যাপী প্রথম আন্তর্জাতিক সম্মেলনের উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে তিনি এ আহ্বান জানান।

দেশের স্বাস্থ্য সেবার ইতিহাসে দেখা যায়, প্রথম থেকেই ফিজিওথেরাপিসহ অন্যান্য পুনর্বাসনভিত্তিক পেশাজীবীরা অবহেলিত। তাদের সম্পর্কে সাধারণ মানুষের সঠিক ধারণা ও নিয়ন্ত্রণের অভাব ছিল বলেও মন্তব্য করেন তিনি।

তিনি আরও বলেন, আমাদের সবাইকে পুনর্বাসন সেবা সম্পর্কে বুঝতে হবে। মানুষের শারীরিক বিষয়গুলো, কথা বলা, হাতের ছোট ছোট কাজ ও মানসিক স্বাস্থ্য সম্পর্কে জানতে হবে। আমাদের সহযোগিতার মাধ্যমে প্রতিবন্ধীদের জীবনের দৈনন্দিন কাজকে গতিশীল করতে হবে। তাদের নিজেদের কাজ, কর্মক্ষেত্রের কাজে সহযোগিতার পাশাপাশি তাদের মানসিক উন্নয়নে কাজ করতে হবে।

সম্মেলনে স্বাস্থ্যমন্ত্রী মোহাম্মাদ নাসিম তার বক্তব্যে ফিজিওথেরাপিস্ট, অকুপেশনাল থেরাপিস্ট, স্পিচ অ্যান্ড ল্যাংগুয়েজ থেরাপিস্ট, প্রোস্থেটিস্ট ও অর্থোটিস্ট এবং ক্লিনিক্যাল সাইকোলজিস্টদের জন্য কাউন্সিল ও নিয়োগবিধি প্রণয়নে দ্রুত ব্যবস্থা নেয়ার আশ্বাস দেন। দুই দিনব্যাপী এই সম্মেলনে বিশ্বের ১২টি দেশের চিকিৎসা ও পুনর্বাসন পেশাজীবী ও প্রতিনিধিরা অংশ নিচ্ছেন। বাংলাদেশ ফিজিওথেরাপি অ্যাসোসিয়েশন (বিপিএ) আয়োজিত দুই দিনব্যাপী আন্তর্জাতিক সম্মেলনের মূল প্রতিপাদ্য নির্ধারণ করা হয়েছে ‘এসডিজি বাস্তবায়নের জন্য সমন্বিত পুনর্বাসন সেবা নিশ্চিতকরণ’।