বহু কালের বহুল আলোচিত রহস্য উন্মোচিত!

বহু কালের বহুল আলোচিত এক রহস্য উন্মোচিত হলো। ভ্যাটিকানের ৫০০ বছর ধরে অন্ধকারে থাকা কিছু প্রশ্ন অবশেষে আলোর মুখ দেখলো। ১৫২০ সাল থেকে ২০১৭ সাল এর মধ্যে পেরিয়ে গেছে ৪৯৭টি বছর। পৃথিবীর ইতিহাসে যুক্ত হয়েছে নানা উত্থান-পতনের ঘটনা। তবে এরই মধ্যে অক্ষত ছিল ভ্যাটিক্যান জাদুঘরের দুটি চিত্রকর্ম কিন্তু এগুলো সম্পর্কে কিছু রহস্য ও প্রশ্নের কোনও উত্তর খোঁজে মেলেনি এতোদিন।

রেঁনেসা যুগের বিখ্যাত আঁকিয়ে রাফায়েলের দুটো ছবি খুঁজে পাওয়া গেছে। ভ্যাটিকান জাদুঘরের একটি কক্ষ পরিষ্কারের সময় এগুলোর দেখা মেলে। মাত্র ৩৭ বছর বয়সে ১৫২০ সালে মৃত্যুবরণ করেন রাফায়েল। বিশেষজ্ঞদের ধারণা, মৃত্যুর পূর্বকালে এগুলোই তার আঁকা শেষ ছবি। এ প্রসঙ্গে ভ্যাটিকানের প্রধান সংরক্ষক ফাবিও পিয়াসেনিতি জানা ন, এটা একটা বড় ধরনের আবিষ্কার বলা যায়। দীর্ঘ ৫০০ বছরের রহস্য উন্মোচিত হয়েছে। তার শেষ দুটো চিত্রকর্ম এগুলো। এক মহান চিত্রশিল্পীর অমূল্য সম্পদ এগুলো। দুটো নারী চরিত্র আঁকা হয়েছে চিত্রকর্মে। একজন তুলে ধরেছেন ন্যায়বিচার, আরেকজন বন্ধুত্ব।

১৫১৯ সালের দিকে এগুলো আঁকা হয়েছে বলে মনে করা হচ্ছে। এই কক্ষের কিছু কাজ পেয়েছিলেন তিনি। অন্যান্য কাজ মৃত্যুর আগে শেষ করতে পারেননি রাফায়েল। তবে তার মৃত্যুর পর অন্যান্য চিত্রকররা কক্ষের বাকি কাজ শেষ করেন এবং পরে এই দুই চিত্রকর্মের কথা ভুলে যান। ১৫০৮ সালে পোপ জুলিয়াস দ্বিতীয় তার ব্যক্তিগত অ্যাপার্টমেন্টের তিনটি কক্ষের পেইন্টিংয়ের কাজ পেয়েছিলেন রাফায়েল। আজ এই তিনটি কক্ষ ‘রাফায়েলস রুমস’ হিসেবে পরিচিত। এসব কক্ষের দেয়াল চিত্র ‘স্কুল অব এথেন্স’ নামেও পরিচিত।

ওই অ্যাপার্টমেন্টের সবচেয়ে বড় ও চতুর্থ কক্ষে কাজ শুরুর চিন্তা করেছিলেন তিনি। সেখানে তিনি সেই সময় প্রচলিত ফ্রেস্কো পদ্ধতির পরিবর্তে তেল রং ব্যবহারের চিন্তা করেছিলেন। ১৫৫০ সালে জর্জিও ভাসারির লেখা ‘লাইভস অব দ্য মোস্ট এক্সেলেনরট পেইন্টার্স, স্কাল্পচার্স অ্যান্ড আর্কিটেকচার্স’ বইয়ের রেখা রয়েছে যে, রাফায়েল তেল রং নিয়ে নতুন ধরনের গবেষণা শুরু করেছেন। এই তথ্যটি রাফায়েলের চিত্রকর্ম খুঁজে বের করার সূত্র হিসেবে কাজ করছিল। যে দুটো ছবি মিলেছে সেগুলো তেল রংয়ের আঁকা হয়েছে। দেয়ালের বাকি চিত্র ফ্রেস্কো পদ্ধতিতে আঁকা। আল্ট্রা-ভায়োলেট এবং ইনফ্রারেডের মাধ্যমে নিশ্চিত হওয়া গেছে যে, ছবিগুলো রাফায়েলের আঁকা এবং তেল রংয়ে আঁকা হয়েছিল।

ফাবিও জানান, সেই সময় ব্রাশওয়ার্কের সাহস একমাত্রা রাফায়েরই ছিল। দেয়ালে ব্রাশওয়ার্কের কাজও রয়েছে। আরো কিছু অনন্য পদ্ধতি ব্যবহার করেছিলেন তিনি এগুলো আঁকতে। রাফায়েলের ছবি দুটো মেরামত করতে হবে। দুটো ছবির মেরামতের কাজ করতে ২০২২ সাল লেগে যাবে। এতে খরচ ধরা হয়েছে ২.৭ মিলিয়ন ইউরো। এর জন্য ফান্ড গঠন করা হবে।