জাতীয় পুরস্কারের জন্য জুরি বোর্ডের ২৮টি ছবি নির্বাচন

জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কার এর জন্য ২৮টি ছবি নির্বাচন করেছে বাছাই কমিটি। এর মধ্যে যৌথ প্রযোজনায় নির্মিত তিনটি ছবি রয়েছে। ছবিগুলো এরই মধ্যে দেখা শুরু করেছে জুরি বোর্ড।

ছবিগুলোর তালিকা

শবনম ফেরদৌসী পরিচালিত ‘জন্মসাথী’, মোহাম্মদ মোস্তফা কামাল রাজ পরিচালিত ‘সম্রাট’, রাশেদ মোর্শেদের ‘পৃথিবীর নিয়তি’, এস এ হক অলীক পরিচালিত ‘এক পৃথিবী প্রেম’, রুবাইয়াত হোসেনের ‘আন্ডার কনস্ট্রাকশন’, সাফিউদ্দিন সাফি পরিচালিত ‘পূর্ণদৈর্ঘ্য প্রেম কাহিনী-২’, গৌতম ঘোষ পরিচালিত ‘শঙ্খচিল’, তৌকীর আহমেদ পরিচালিত ‘অজ্ঞাতনামা’, মুশফিকুর রহমান গুলজার পরিচালিত ‘মন জানে না মনের ঠিকানা’, মেহের আফরোজ শাওন পরিচালিত ‘কৃষ্ণপক্ষ’, প্রয়াত বেলাল আহমেদ পরিচালিত ‘ভালোবাসবোই তো’, শামীম আখতার পরিচালিত সরকারি অনুদানপ্রাপ্ত ছবি ‘রীনা ব্রাউন’, সুমন ধর পরিচালিত ‘দর্পণ বিসর্জন’, মুশফিকুর রহমান গুলজার পরিচালিত সরকারি অনুদানপ্রাপ্ত ছবি ‘লাল সবুজের সুর’, তাহের শিপন পরিচালিত ‘একাত্তরের নিশান’, ওয়াজেদ আলী সুমন পরিচালিত ‘সুইট হার্ট’, জাকির হোসেন রাজুর ‘নিয়তি’, আবদুল আজিজ ও জয়দ্বীপ মুখার্জির ‘শিকারি’, নাদের চৌধুরী পরিচালিত ‘মেয়েটি এখন কোথায় যাবে’, জাকির হোসেন রাজু পরিচালিত ‘অনেক দামে কেনা’, অমিতাভ রেজা পরিচালিত ‘আয়নাবাজি’, রেদওয়ান রনি পরিচালিত ‘আইসক্রিম’, রফিক সিকদার পরিচালিত ‘ভোলা তো যায় না তারে’, আশিকুর রহমান পরিচালিত ‘সারাংশে তুমি’, অপূর্ব রানা পরিচালিত ‘পুড়ে যায় মন’, তাসমিয়াহ আফরিন পরিচালিত ‘কবি স্বামীর মৃত্যুর পর আমার জবানবন্দি’, সুমনা সিদ্দিকী পরিচালিত ‘মাধো’ ও অনন্য মামুন পরিচালিত ‘অস্তিত্ব’।