‘আখি ও তার বন্ধুরা’ ছবির প্রশংসা করে তৌকীর আহমেদের স্ট্যাটাস

কথাসাহিত্যিক ড. মুহম্মদ জাফর ইকবালের গল্প অবলম্বনে সরকারি অনুদানে নির্মিত মোরশেদুল ইসলামের শিশুতোষ চলচ্চিত্র ‘আঁখি ও তার বন্ধুরা’রাজধানী সহ সারাদেশের বেশ কয়েকটি প্রেক্ষাগৃহে ২২ ডিসেম্বর মুক্তি পেতে যাচ্ছে।

গত ১৮ ডিসেম্বর সোমবার রাজধানীর বসুন্ধরা সিটি স্টার সিনেপ্লেক্সে প্রিমিয়ার হয়েছে ইমপ্রেস টেলিফিল্ম ও মনন চলচ্চিত্র প্রযোজিত ও লাভেলো আইসক্রিম নিবেদিত এই চলচ্চিত্রের।

প্রিমিয়ার দেখে জনপ্রিয় অভিনেতা ও নির্মাতা তৌকীর আহমেদ তার সামাজিক মাধ্যম ফেসবুকে ছবিটির প্রশংসা করে একটি স্ট্যাটাস দিয়েছেন। স্ট্যাটাসে তিনি লিখেছেন, “প্রিমিয়ারে দেখা হয়ে গেল ‘আখি ও তার বন্ধুরা’ মোরশেদুল ইসলামের পরিচালনায় জাফর ইকবালের উপন্যাস অবলম্বনে, বাচ্চাদের নিয়ে সুনির্মিত এই ছবিটি দেখতে বাচ্চারা আগ্রহী হবেন স্বাভাবিক ভাবেই, সঙ্গে বাবা মাও উপভোগ করতে পারবেন পুরোটাই।

অত্যন্ত সংবেদনশীল একটি গল্পকে মোরশেদুল ইসলাম পর্দায় এনেছেন সুন্দর ভাবে। মোরশেদুল ভাইয়ের সব কাজেই দায়বদ্ধতার জায়গাটি পরিষ্কার, নিরলস ভাবে তিনি কাজ করে চলেছেন।মুক্তিযুদ্ধ এবং শিশুদের বিষয় তার চলচ্চিত্রে বিশেষ গুরুত্ব পেয়েছে বেশীর ভাগ সময়ে।

শিশুদের নিয়ে আমাদের দেশে খুব কম কাজ হয়। সেক্ষেত্রে মোরশেদ ভাই এর চেষ্টা প্রশংসনীয়।এই ধরনের চলচ্চিত্রকে কি ভাবে সর্বস্তরের শিশুদের কাছে নিয়ে যাওয়া যায় সেটা ভাবা উচিত। সরকারের সহযোগিতা থাকা উচিত কর মওকুফ বা প্রতিটি প্রেক্ষাগৃহে শিশুদের জন্য কিছু সংরক্ষিত প্রদর্শনীর আয়োজন তো হতেই পারে।

নির্মাতা তার দায়বদ্ধতা থেকে বানিয়েছেন এবার দর্শকরা একটু দায়বদ্ধ হয়ে যদি আপনাদের সন্তানদের নিয়ে ছবিটা দেখেন তা হলেই নির্মাতার পরিশ্রমটা সার্থক হবে।

মোরশেদুল ইসলাম, তানভীর মোকাম্মেল, তারেক মাসুদ, এর ছবি দেখেই আমরা তারুণ্যে অনুপ্রাণিত হয়েছিলাম, স্বপ্ন দেখেছিলাম চলচ্চিত্র নির্মাণের। কৃতজ্ঞতা – অগ্রজ মোরশেদুল ইসলাম।”