কারাগার ভেঙে গণতন্ত্রকে মুক্ত করতে হবেঃ ফখরুল

খালেদা জিয়া নয় বছর ধরে গণতন্ত্রের জন্য সংগ্রাম করছেন বলে মন্তব্য করেছেন বিএনপির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর। তিনি বলেন, ‘আজ তার বিরুদ্ধেও মিথ্যা মামলা দিয়ে হয়রানি করা হচ্ছে। বিএনপির হাজার হাজার নেতাকর্মীকে মিথ্যা মামলা দিয়ে কারাবন্দি করা হয়েছে। এই কারাগার থেকে বেরিয়ে আসতে হবে আমাদের। কারাগার ভেঙে গণতন্ত্রকে মুক্ত করতে হবে।’ বুধবার বিকাল ৩ টায় বিজয় দিবস উপলক্ষে ঢাকা মহানগর উত্তর-দক্ষিণ বিএনপি আয়োজিত র‌্যালির আগে সংক্ষিপ্ত বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন।

জাতীয় ঐক্যের আহ্বান জানিয়ে মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর বলেন, ‘আজকের এই দিনে জাতীয় ঐক্যের আহ্বান আমরা করছি। বলতে চাই, একটি সুষ্ঠু ও অবাধ নির্বাচনের জন্য নিরপেক্ষ নির্দলীয় সরকারের মাধ্যমে নির্বাচন দিয়ে জনগণের রায়কে প্রতিষ্ঠিত করতে চাই। আবারও নিরপেক্ষ নির্বাচনের দাবি জানাই।’

মির্জা ফখরুল বলেন, ‘বাংলাদেশের মানুষকে কখনও পদদলিত করে রাখা যাবে না, তাদের কখনও দাবিয়ে রাখা যাবে না। এদেশের মানুষ অতীতে স্বাধীনতা ও গণতন্ত্রের জন্য সংগ্রাম করেছে। এবারও রক্ত দিয়ে হলেও গণতন্ত্র ফিরিয়ে আনবে। আজকে শান্তিপূর্ণভাবে বিজয় র‌্যালির মাধ্যমে গণতন্ত্রে দাবিতে সবাইকে সোচ্চার হতে হবে।’ তিনি আরও বলেন, ‘আমরা গণতন্ত্রসমৃদ্ধ বাংলাদেশ চাই, যেখানে গণতান্ত্রিক পরিবেশ থাকবে। মানুষ মত-প্রকাশ করতে পারবে, সাংবাদিকরা মুক্তভাবে লিখতে পারবেন। এই ধরনের মুক্ত বাংলাদেশ চাই। কিন্তু এই আওয়ামী লীগ সরকার শুধু একদলীয় শাসন ব্যবস্থা পাকাপোক্ত করতে সব ধরনের গণতান্ত্রিক অধিকার কেড়ে নিয়ে আমাদের পদদলিত করতে চায়।’

এ সময় আরও উপস্থিত ছিলেন বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য খন্দকার মোশাররফ হোসেন, গয়েশ্বর চন্দ্র রায়, আমীর খসরু মাহমুদ চৌধুরী, ভাইস চেয়ারম্যান শামসুজ্জামান দুদু প্রমুখ।