‘আগামী দিনে ব্যাংকিং হবে ক্যাশ লেস ব্যাংকিং’

নাটোরের সিংড়ায় ইসলামী ব্যাংকের ৩৩২তম শাখার উদ্বোধন করা হয়েছে। রবিবার সকালে স্থানীয় একটি কমিউনিটি সেন্টারে আয়োজিত অনুষ্ঠানে ফিতা কেটে ব্যাংকটির উদ্বোধন করেন তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি প্রতিমন্ত্রী জুনাইদ আহমেদ পলক।

ব্যাংকটির চেয়ারম্যান আরাস্তু খানের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে বক্তব্য দেন- তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি বিভাগের প্রতিমন্ত্রী জুনাইদ আহমেদ পলক, ব্যাংকের ম্যানেজিং ডাইরেক্টর ও প্রধান নির্বাহী মো. আব্দুল হামিদ মিঞা, এডিশনাল ম্যানেজিং ডাইরেক্টর মাহবুব উল আলম, ডেপুটি ম্যানেজিং ডাইরেক্টর আবু রেজা মো. ইয়াহিয়া, সিংড়া পৌরসভার মেয়র জান্নাতুল ফেরদৌস, রাজশাহী জোনপ্রধান ও এক্সিকিউটিভ ভাইস প্রেসিডেন্ট কাউসার উল আলম, সিনিয়র ভাইস প্রেসিডেন্ট শামসুদ্দোহা ও শাখা ব্যবস্থাপক এনামুল হক। অনুষ্ঠানে ব্যাংকের নির্বাহী, স্থানীয় ব্যবসায়ী, পেশাজীবী ও বিশিষ্ট ব্যক্তিবর্গ উপস্থিত ছিলেন।

অনুষ্ঠানের প্রধান অতিথি প্রতিমন্ত্রী জুনাইদ আহমেদ পলক বলেন, তথ্য প্রযুক্তির উন্নয়নের মাধ্যমে বাংলাদেশ এগিয়ে যাচ্ছে। ব্যাপক উন্নয়ন ঘটেছে ব্যাংকিং খাতেও। ইসলামী ব্যাংক উত্তম গ্রাহক সেবা প্রদান ও শরিয়া পরিপালনের মাধ্যমে দেশের সেরা ব্যাংকের মর্যাদা অর্জন করেছে। তথ্য প্রযুক্তির উন্নয়নে সরকারের পাশাপাশি ইসলামী ব্যাংকও কাজ করছে। এ খাতে বিনিয়োগ বৃদ্ধির মাধ্যমে দেশের উন্নয়ন তরান্বিত করতে হবে। তিনি চলনবিল বিধৌত নাটোরের সিংড়ায় আধুনিক প্রযুক্তি নির্ভর ই-কমার্স চালু করার জন্য ইসলামী ব্যাংকের প্রতি আহ্বান জানান।

তিনি আরো বলেন, এখনও ৮ কোটি মানুষের কোন ব্যাংক অ্যাকাউন্ট নেই। এক কোটি মানুষ মোবাইল ব্যাংকিংকে লেনদেন করেন। তাই আগামী দিনে ব্যাংকিং হবে ক্যাশ লেস ব্যাংকিং। এজন্য ব্যাংকগুলো ভবিষৎ চিন্তা করে তাদের সেবাগুলো মানুষের কাছে পৌঁছে দেবে।

আরাস্তু খান সভাপতির বক্তব্যে বলেন, ইসলামী ব্যাংক শরিয়া পরিপালন ও সকল রেগুলেটরি অথরিটির নিয়ম-কানুন পরিপালনের মাধ্যমে দেশের সেরা ব্যাংকের মর্যাদা লাভ করেছে। সরকারের উন্নয়ন কার্যক্রমকে আরো বেগবান করতে কাজ করছে এই ব্যাংক। তিনি বলেন, ইসলামী ব্যাংক শহরের পাশাপাশি গ্রামাঞ্চলেও বিনিয়োগের মাধ্যমে দেশের উন্নয়নে কাজ করছে। তিনি উন্নত সেবা প্রদানের জন্য কর্মকর্তাদের প্রতি আহ্বান জানান।

ম্যানেজিং ডাইরেক্টর ও প্রধান নির্বাহী মো. আব্দুল হামিদ মিঞা বলেন, ইসলামী ব্যাংক বাংলাদেশের ১৬ কোটি মানুষের ব্যাংক। এটা জামায়াত বা দলীয় ব্যাংক নয়। ব্যবসা-বাণিজ্য ও শিল্প উন্নয়নের মাধ্যমে দরিদ্র জনগোষ্ঠীর উন্নয়নের মাধ্যমে দেশকে এগিয়ে নিতে কাজ করছে এ ব্যাংক।