হাজারো কণ্ঠ একসঙ্গে গেয়ে উঠবে জাতীয় সঙ্গীত

আজ বিকাল পৌনে ৪টায় ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের কেন্দ্রীয় খেলার মাঠে বিজয় দিবসে হাজার কণ্ঠ দেশের গান গাওয়ার অনুষ্ঠান আয়োজন করছে সাংস্কৃতিক সংগঠন ছায়ানট। প্রজন্মকে ‘দেশাত্মবোধে উদ্বুদ্ধ করতে’ সহ-আয়োজক হিসেবে থাকছে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়।

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের কেন্দ্রীয় খেলার মাঠ সাজবে জাতীয় পতাকার রং লাল-সবুজে, সবাই গেয়ে উঠবে ‘আমার সোনার বাংলা আমি তোমায় ভালোবাসি।’

লাল শাড়ি আর পাঞ্জাবি পরে আসবেন শিল্পীরা। দর্শকদের অনুরোধ করা হয়েছে সবুজ শাড়ি আর পাঞ্জাবি পরতে, যাতে লাল সবুজের পতাকার আদল আনা যায়।

দেশাত্মবোধক গানের অনুষ্ঠানের উদ্বোধন করবেন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য অধ্যাপক মোহাম্মদ আখতারুজ্জামান, ছায়ানটের সভাপতি সন্জীদা খাতুন।

ছায়ানটের নির্বাহী সভাপতি সারওয়ার আলী বলেন, “গত কয়েক বছরে আমরা সাম্প্রদায়িকতার নৃশংস রূপ দেখছি, জঙ্গিবাদের উত্থান ঘটছে। এদের প্রতিরোধে সংস্কৃতি চর্চাকেই প্রধান অস্ত্র হিসেবে ধরে এগোতে চাইছে ছায়ানট। আর তার সঙ্গে তরুণদের যুক্ত করা প্রয়োজন।”

এবারের অনুষ্ঠান সাজানো হয়েছে নৃত্যসহ নয়টি সম্মেলক গান, একটি করে একক গান ও আবৃত্তি এবং একটি দ্বৈত গান নিয়ে। নৃত্য পরিচালনা করছেন শর্মিলা বন্দ্যোপাধ্যায়, বেলায়েত হোসেন, সোনিয়া রশীদ, ফারহানা আহমেদ ও শ্রাবণী মজুমদার।

১৯৭১ সালের ঐতিহাসিক ১৬ ডিসেম্বরে পাকিস্তান সেনাবাহিনীর আত্মসমর্পণ ও বাঙালির পূর্ণাঙ্গ বিজয়ের ক্ষণকে স্মরণ করে সম্মিলিত কণ্ঠে জাতীয় সঙ্গীত গেয়ে সমাপ্তি টানা হবে আয়োজনের।