‘মিয়ানমারের বাণিজ্য সুবিধা বন্ধ করতে হবে’

রোহিঙ্গা সমস্যার সমাধানে আন্তর্জাতিক সম্প্রদায়ের কাছে মিয়ানমারের বাণিজ্য সুবিধা বন্ধ করার দাবি জানিয়েছে ‘বাংলাদেশ ট্রেড ইউনিয়ন সলিডারিটি কমিটি ফর রোহিঙ্গা’ নামের একটি সংগঠন। শুক্রবার সকালে জাতীয় প্রেসক্লাবের সামনের ফুটপাতে আয়োজিত এক অনশন থেকে এ দাবি জানানো হয়।

কমিটির কো-অর্ডিটেটর শ্রমিক নেতা আমিরুল হক আমিনের সভাপতিত্বে অনশনে বক্তব্য রাখেন- যুগ্ম কো-অর্ডিনেটর কামরুল আহসান, এম দোলোয়ার হোসেন, সালাউদ্দিন স্বপন, কামরুল হাসান, কাজী মোহাম্মদ আলী, মুক্তার আলী, রফিকুল ইসলাম বাবুল, মোহাম্মদ আলী, অহিদুর রহমান, কামরুন নাহার, শামীমা শিরিন, আরিফা আক্তার, নাসিমা আক্তার, কুলসুম আক্তার প্রমুখ।

বক্তরা বলেন, অবিলম্বে মিয়ানমারের রোহিঙ্গাদের ওপর পরিচালিত গণহত্যা, ধর্ষণ ও লুণ্ঠন বন্ধ করতে হবে। সেই সঙ্গে বাংলাদেশে আশ্রয় নেয়া ১০ লাখ রোহিঙ্গা শরণার্থীকে পূর্ণ নাগরিকত্ব দিয়ে নিরপদে মিয়ানমারে ফিরিয়ে নিতে হবে।

রোহিঙ্গা সমস্যার দ্রুত সমাধান না হলে পাঁচ লাখের বেশি কর্মক্ষম রোহিঙ্গা বাংলাদেশের শ্রম বাজারে অবৈধ অনুপ্রবেশ করবে। এর ফলে বাংলাদেশের শ্রমিক এবং শ্রম মানের যে বিপদ ও অবনতি ঘটবে। সে ব্যাপারে আন্তর্জাতিক শ্রমিক সংগঠন, মানবাধিকার সংগঠন, বহুজাতিক কোম্পানি, উন্নয়ন সংস্থাসহ সকল রাষ্ট্র এবং সম্প্রদায়কে সজাগ থাকার জন্য অনশন থেকে আহ্বান জানানো হয়।

অনশন থেকে বলা হয়, ইউরোপ আমেরিকাসহ সকল রাষ্ট্র এবং সম্প্রদায়কে রোহিঙ্গা শরণার্থীদের মিয়ানমারে প্রত্যাবর্তনের জন্য সোচ্চার ভূমিকা গ্রহণ করতে হবে। চীন, রাশিয়া, ভারতসহ যেসব রাষ্ট্র এখনও রোহিঙ্গা সমস্যায় দ্বিধাদ্বন্দে ভুগছে, তাদের অবিলম্বে সমস্ত দ্বিধাদ্বন্দ পরিত্যাগ করে রোহিঙ্গাদের পক্ষে পদক্ষেপ নিতে হবে।