ট্রাম্পের টুইট গুলোকে আমেরিকার সরকারি ঘোষণা মনে করেন পুতিন

মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প কোনো টুইট করলেই তার খবর রাশিয়ার প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিনকে জানানো হয় এবং পুতিন ট্রাম্পের টুইটার বার্তাগুলোকে আমেরিকার সরকারি ঘোষণা বলে মনে করেন।

এ তথ্য জানিয়েছেন রাশিয়ার প্রেসিডেন্টের আবাসিক দপ্তর ক্রেমলিনের মুখপাত্র দিমিত্রি পেসকভ। তিনি বলেন, ডোনাল্ড ট্রাম্প টুইটারে যা কিছু লেখেন তার সঙ্গে অন্যান্য কর্মকর্তার বক্তব্য ও তথ্য সঙ্গে সঙ্গে প্রতিবেদন আকারে পুতিনকে জানানো হয়।

একই সঙ্গে পেসকভ আরো বলেন, পুতিনের কোনো টুইটার অ্যাকাউন্ট নেই এবং তার পক্ষ থেকে কেউ টুইট করুক তাও চান না রাশিয়ার প্রেসিডেন্ট। অন্যদিকে টুইটার ও ইনস্টাগ্রামসহ অন্যান্য সামাজিক যোগাযোগের মাধ্যমগুলোর প্রতি মার্কিন প্রেসিডেন্ট ট্রাম্প ভীষণভাবে আসক্ত।

ট্রাম্প তার অফিসিয়াল টুইটার পেজটি নিজেই চালান এবং বহুবার বলেছেন, সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে তার সক্রিয় উপস্থিতি মার্কিন প্রেসিডেন্ট নির্বাচনে তার জয়লাভে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করেছে।

বাস্তবতা হচ্ছে, ট্রাম্পের টুইটার বার্তাগুলো আমেরিকার অভ্যন্তরীণ রাজনীতিতে ব্যাপক বিশৃঙ্খলতা তৈরি করেছে। এছাড়া, এ ধরনের টুইট বার্তা ব্রিটেনের সঙ্গে আমেরিকার সম্পর্কের অবনতি ঘটিয়েছে।