‘দৃষ্টি ফেরাতেই বিএনপির বিক্ষোভ’

সৌদি আরবে জিয়ার পরিবারের যে দুর্নীতির খবর বের হয়েছে সেদিক থেকে জনগণের দৃষ্টি অন্যদিকে ফেরাতেই বিএনপি বিক্ষোভ মিছিলের ডাক দিয়েছে বলে মন্তব্য করেছেন আওয়ামী লীগের প্রচার ও প্রকাশনা সম্পাদক হাছান মাহমুদ।

তিনি বলেন, বিএনপি বিগত সময়ে যেসব আন্দোলন করেছে সবগুলোই ছিল ক্ষমতায় যাওয়ার আন্দোলন। বিএনপি এমন একটা মাঠ চায় যে মাঠে খেললে তারা নির্বাচনে জয় লাভ করতে পারবে। গত ৯ বছরে বিএনপি জনগণের কোনো দাবি নিয়ে আন্দোলন করেনি। হঠাৎ আজ দ্রব্যমূল্য বৃদ্ধির প্রতিবাদে বিক্ষোভ করছে। এ বিক্ষোভের মূল লক্ষ্য হচ্ছে সৌদিতে খালেদা জিয়া ও তার পরিবারের বিরুদ্ধে যে দুর্নীতির খবর বের হয়েছে সেদিক থেকে জনগণের দৃষ্টি অন্যদিকে নেয়া। এটা জনগণের অধিকার আদায়ের কোনো আন্দোলন নয়। জিয়া পরিবারের অর্থ চুরির ঘটনা আড়াল করার জন্যই বিএনপি এ বিক্ষোভ সমাবেশের ডাক দিয়েছে। বুধবার মুক্তিযুদ্ধা প্রজন্ম লীগের আয়োজনে জাতীয় প্রেস ক্লাবের সামনে আয়োজিত মানববন্ধনে তিনি এসব কথা বলেন।

দ্রব্যমূল্য বৃদ্ধি নিয়ে সাবেক এ মন্ত্রী বলেন, দ্রব্যমূল্য পৃথিবীর সব দেশেই বৃদ্ধি পায়। এটা নতুন কিছু না। দেখতে হবে জনগণের আয় বৃদ্ধি পেয়েছে কিনা। আগে বিদ্যুতের একটা মিনিমাম বিল দিতে হতো। এটা আর এখন দিতে হবে না। এসব আড়াল করতে চায় বিএনপি। মানুষকে বিভ্রন্তি করতে চায়।

বিএনপির মহাসচিব মির্জা ফখরুলের সমালোচনা করে তিনি বলেন, প্রধানমন্ত্রীর তথ্য ও প্রযুক্তি বিষয়ক উপদেষ্টা সজীব ওয়াজেদ জয় আওয়ামী লীগ নেতাদের সঙ্গে বৈঠক করে যখন বললেন জরিপে আওয়ামী লীগ অনেক এগিয়ে। ২০১৯ সালের নির্বাচনে আওয়ামী লীগ ২০০৮ সালের নির্বাচনের চেয়ে বেশি আসনে জয় পাবে। এ কথা শুনে বিএনপির নেতাদের ঘুম হারাম হয়ে গেছে। মির্জা ফখরুল কি বলবেন বুঝতে পারছিলেন না। আবল-তাবল বলতে শুরু করেছেন। আমি বলব আবল-তাবল না বলে নির্বাচনের প্রস্তুতি নিন। কারণ আমরা খেলে গোল দিতে চায়। আমরা ওয়াক ওভার চাই না।

মানববন্ধনে সভাপতিত্ব করেন মুক্তিযুদ্ধা প্রজন্ম লীগের সভাপতি অ্যাডভোকেট আসাদুজ্জামান দূর্জয়।