বাংলাদেশে প্রথমবারের মতো আয়োজিত হচ্ছে ফ্যাশনলজি সামিট

বাংলাদেশে ফ্যাশনলজি সামিটকে প্রযুক্তি, উদ্ভাবন ও ফ্যাশনের সব স্তরের সঙ্গে সংশ্লিষ্টদের মিলনমেলায় পরিণত করাই এই আয়োজনের মূল লক্ষ্য। সোমবার রাতে সংগঠনটির পক্ষ থেকে এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এসব তথ্য জানানো হয়েছে।

প্রযুক্তি, উদ্ভাবন এবং জ্ঞান বিনিময়ের মাধ্যমে বস্ত্র ও ফ্যাশন শিল্পের বর্তমান এবং ভবিষ্যতের মাঝে সেতুবন্ধন তৈরির লক্ষ্য নিয়ে দেশে প্রথমবারের মতো আয়োজিত হতে যাচ্ছে বাংলাদেশে ফ্যাশনলজি সামিট। নতুন বছরের ১২ ফেব্রুয়ারি ঢাকায় অনুষ্ঠিতব্য দিনব্যাপী এ আন্তর্জাতিক সামিটের আয়োজন করছে বাংলাদেশ এপারেল এক্সচেঞ্জ (বিএই)।

বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, বিশ্বের বিভিন্ন প্রান্ত থেকে ব্র্যান্ড, পোশাক ও বস্ত্র প্রস্তুতকারক, প্রযুক্তি ও সফটওয়্যার নির্মাতা এবং সেবা প্রদানকারী প্রতিষ্ঠানসহ পোশাক খাত সংশ্লিষ্ট বিভিন্ন স্টেক হোল্ডাররা ফ্যাশনলজি সামিটে অংশগ্রহণ করবেন। যেখানে তারা সর্বাধুনিক পণ্য, প্রযুক্তি ও উদ্ভাবনগুলো (যা ফ্যাশন শিল্পের আগামীর রূপদানে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করবে) নিয়ে আলোচনা করবেন।

বাংলাদেশ এপারেল এক্সচেঞ্জের প্রতিষ্ঠাতা এবং সিইও মোস্তাফিজ উদ্দিন বলেন, আধুনিক, উদ্ভাবনী ও প্রযুক্তিনির্ভর পোশাক প্রস্তুত প্রক্রিয়া ও সাপ্লাই চেইন তৈরির আলোচনার পথ সুগম ও প্রশস্ত করাই আমাদের মূল লক্ষ্য। এ সামিটের আরও একটি অন্যতম লক্ষ্য হলো- ফ্যাশন শিল্পে প্রগতিশীল ও উদ্ভাবনী মনমানসিকতা সম্পন্ন একটি নেতৃত্ব প্রদানকারীর দল তৈরি করা, যারা সর্বাধুনিক প্রযুক্তি ও উদ্ভাবনী শক্তির দ্বারা আমাদের দেশকে আগামী প্রজন্মের পোশাক প্রস্তুত ও বিপণনের একটি কেন্দ্রবিন্দুতে পরিণত করার যথার্থ দিক নির্দেশনা প্রদান করতে পারবেন।