বঙ্গবন্ধুর ৭ মার্চের ভাষণ বিশ্ব ইতিহাসে সেরা ভাষণঃ মেনন

বেসামরিক বিমান পরিবহন ও পর্যটনমন্ত্রী রাশেদ খান মেনন এমপি বলেছেন, গণতান্ত্রিক ও অসাম্প্রদায়িক রাজনীতির আদর্শ প্রতিষ্ঠা এখন সময়ের দাবি। ৭ মার্চের জনসভায় বঙ্গবন্ধু তা আরও স্পষ্ট করেন। তাই মুক্তিযুদ্ধের চেতনায় প্রতিষ্ঠিত বাংলাদেশকে যারা মৌলবাদ আর সাম্প্রদায়িক তকমা পরাতে চায় তাদের বিরুদ্ধে প্রবাসীসহ সবাইকে ঐক্যবদ্ধ হতে হবে।

তিনি বলেন, আগামী নির্বাচনে যাতে মুক্তিযুদ্ধের পক্ষের শক্তি আবারও ক্ষমতায় আসে সেজন্য কাজ করতে হবে। রোববার সকালে জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ৭ মার্চের ঐতিহাসিক ভাষণকে ইউনেস্কো ‘মেমোরি অব দ্য ওয়ার্ল্ড’ হিসেবে স্বীকৃতি দেয়ায় ওমানের রাজধানী মাস্কাটের বাংলাদেশ স্কুল থেকে বর্ণাঢ্য র‍্যালি পূর্ব সমাবেশে মন্ত্রী এ কথা বলেন।

র‍্যালিতে উপস্থিত ছিলেন ওমানে নিযুক্ত বাংলদেশের রাষ্ট্রদূত গোলাম সারওয়ার, স্কুলের অধ্যক্ষ মেজর (অব.) নাসির উদ্দিন, বিমান ও পর্যটন মন্ত্রণালয়ের যুগ্ম-সচিব এটিএম নাসির মিয়া, স্থানীয় আওয়ামী লীগ ও বাংলাদেশ কমিউনিটির নেতারা। বাংলাদেশি বিভিন্ন স্কুলের শিক্ষার্থী, বাংলাদেশ অ্যাম্বাসির কর্মকর্তা-কর্মচারী, ওমান প্রবাসীসহ প্রায় ২ হাজার বাংলাদেশি অংশগ্রহণ করে।

রাশেদ খান মেনন বলেন, বঙ্গবন্ধুর ৭ মার্চের ভাষণ বিশ্ব ইতিহাসে সেরা ভাষণগুলোর অন্যতম। বাঙালির মুক্তির পথ-নকশা নির্মাণে অনন্য-দূরদর্শী ভাষণ এটি। এ ভাষণের ভাব, ভাষা, শব্দ চয়ন ও সাহসী উচ্চারণ মানব জাতির সংগ্রাম ও আন্দোলনের ইতিহাসের অবিস্মরণীয় উপাদানে পরিণত হয়েছে।

ভাষণের প্রতিটি বাক্যে ওঠে এসেছে একটি জাতির ইতিহাস, আত্মনিয়ন্ত্রণ অধিকারের সংগ্রাম ও বাঙালি জাতি রাষ্ট্র প্রতিষ্ঠার প্রত্যয়ের কথা। এ ভাষণের সৌরভ ও গৌরব বিশ্বের প্রতিটি প্রান্তে ছড়িয়ে দিয়ে বঙ্গবন্ধু ও বাংলাদেশকে মহিমান্বিত করতে হবে। উল্লেখ্য, ইউএনডব্লিউটিএ আয়োজিত বিশ্ব পর্যটন ও সাংস্কৃতিক সম্মেলন উপলক্ষে বিমান ও পর্যটনমন্ত্রী ওমানে বাংলাদেশ প্রতিনিধি দলের নেতৃত্ব দিচ্ছেন।