বিআরটিসির ধূমপানমুক্ত পরিবহন

শনিবার কমলাপুর বিআরটিসি বাস ডিপোতে সড়ক পরিবহন ও মহাসড়ক বিভাগের সচিব মো. নজরুল ইসলাম, ডিটিসির নির্বাহী পরিচালক সৈয়দ আহম্মদ এবং বিআরটিসির চেয়ারম্যান ফরিদ আহমেদ ভূঁইয়া একটি বাসে স্থায়ীভাবে ধূমপানমুক্ত  পরিবহন সাইন লেখার মধ্য দিয়ে এ উদ্যোগের শুভ সূচনা করেন।

তামাক নিয়ন্ত্রণ আইন প্রণয়নের পরবর্তীতে বাংলাদেশ সড়ক পরিবহন কর্পোরেশনের (বিআরটিসি) সব পরিবহনে ধূমপানমুক্ত ঘোষণার পাশাপাশি স্টিকার লাগানো হয়েছিল। দীর্ঘদিন অতিবাহিত হওয়ায় আগের স্টিকারগুলো নষ্ট হয়ে যাওয়ায় শনিবার সকালে স্থায়ীভাবে সাইন লেখা হয়েছে বিআরটিসির বাসে। বাসগুলোর বাইরে এবং ভেতরে বিভিন্ন স্থানে ধূমপানমুক্ত পরিবহন কথাটি স্ক্রিন প্রিন্টের মাধ্যমে লিখে দেয়া হয়েছে।

এ সময় বিআরটিসির চেয়ারম্যান ফরিদ আহমেদ ভূঁইয়া বলেন, যাত্রী সেবামান বৃদ্ধি এবং তামাক নিয়ন্ত্রণ আইন বাস্তবায়নে আগে থেকেই কার্যকর পদক্ষেপ গ্রহণ করে আসছে বিআরটিসি। এই উদ্যোগ তারই অংশ। ।

উল্লেখ্য যে, ২০১৬ সালে ফেব্রুয়ারি মাসে বাংলাদেশ তামাকবিরোধী জোটের একটি প্রতিনিধিদল বিআরটিসির চেয়ারম্যান মিজানুর রহমানের সঙ্গে সাক্ষাৎ করে ও পরবর্তীতে বিআরটিসির আওতাধীন সব পরিবহনকে ধূমপানমুক্ত ঘোষণা করে। সেইসঙ্গে প্রতিটি বাসে ধূমপানমুক্ত পরিবহন লেখা সাইন স্থাপনের অনুরোধ জানায়। এরপর বিআরটিসির সব বাসে ধূমপানমুক্ত পরিবহন লেখা সাইন স্টিকারের মাধ্যমে লাগায়। দীর্ঘদিন অতিবাহিত হওয়ায় আগের স্টিকারগুলো নষ্ট হয়ে যাওয়াতে এবার স্থায়ীভাবে বাসগুলোর গায়ে এবং ভেতরে বিভিন্ন স্থানে ধূমপানমুক্ত পরিবহন কথাটি স্ক্রিন প্রিন্টের মাধ্যমে লিখে দেয়া হয়েছে।