যুবলীগ নেতাকে সালাম না দেওয়ায় দুই শিক্ষার্থীকে মারধর

চট্টগ্রামের পটিয়ায় দুই কলেজ শিক্ষার্থীকে মারধরের অভিযোগে মোহাম্মদ বোরহান (২৫) নামের এক যুবলীগ নেতাকে আটক করেছে পুলিশ। তিনি পটিয়া পৌরসভা যুবলীগের সহসম্পাদক। গতকাল রোববার দুপুরে পটিয়া পৌর সদরের তালতলা চৌকি এলাকা থেকে তাঁকে আটক করা হয়। সালাম না দেওয়ায় দুই শিক্ষার্থীকে তিনি মারধর করেছেন বলে অভিযোগ উঠেছে।

পটিয়া পৌরসভার ৯ নম্বর ওয়ার্ডের কাউন্সিলর ও পৌরসভা স্বেচ্ছাসেবক লীগের সভাপতি শেখ সাইফুল ইসলাম বলেন, মোহাম্মদ বোরহান পটিয়া পৌরসভা যুবলীগের সহসম্পাদক। গত বৃহস্পতিবার বেলা সাড়ে ১১টার দিকে কলেজ পড়ুয়া দুই ছাত্র সড়ক দিয়ে হেঁটে যাওয়ার সময় তাঁকে (বোরহান) সালাম দেননি। এ কারণে বোরহান তাঁদের পটিয়া পৌরসভার ফইল্যাতলী এলাকায় মারধর করেছেন। এ ব্যাপারে মারধরের শিকার এক ছাত্র থানায় অভিযোগ করেছেন। বোরহান অতীতেও অনেককে তুচ্ছ ঘটনায় মারধর করেছেন।

তবে বোরহান যুবলীগের কেউ নয় বলে দাবি করেছেন পটিয়া পৌরসভা যুবলীগের সভাপতি নুর আলম ছিদ্দিকী। তিনি বলেন, পৌরসভা যুবলীগে এ নামে কোনো নেতা নেই। একটি পক্ষ প্রতিহিংসাপরায়ণ হয়ে তাঁকে যুবলীগের সহসম্পাদক বলছেন।

পটিয়া থানার উপপরিদর্শক (এসআই) সৈয়দ মোশারফ হোসেন বলেন, বোরহানের বিরুদ্ধে অনেক অভিযোগ পাওয়া গেছে। এ কারণে তাঁকে আটক করে থানায় আনা হয়েছে।

পটিয়া থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) শেখ নেয়ামত উল্লাহ গতকাল সন্ধ্যায় বলেন, বোরহান একজন স্থানীয় বখাটে।  দুই ছাত্র সালাম না দেওয়ায় মারধর করার অভিযোগে তাঁকে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য আটক করা হয়েছে।