‘বানশালির কি অন্য ধর্ম নিয়ে সিনেমা বানানোর সাহস আছে?’

‘সাহস থাকলে বানশালি অন্য ধর্ম, সংস্কৃতির ওপর ছবি বানিয়ে দেখাক। বানশালি বা অন্য কারোর কি অন্য ধর্ম বা সংস্কৃতি নিয়ে সিনেমা বানানোর সাহস আছে? তারা শুধুই হিন্দু গুরু, দেব-দেবী, যোদ্ধাদের নিয়ে সিনেমা বানান। আমরা এটা আর সহ্য করবো না’— এই মন্তব্য করেছেন ভারতের কেন্দ্রীয় মন্ত্রী গিরিরাজ সিং।

সঞ্জয়লীলা বানশালির ‘পদ্মাবতী’র মুক্তি নিয়ে জটিলতা কাটছেই না। খিলজি বা পদ্মাবতীর কোনও দৃশ্য ছবিতে দেখানো হলে মুক্তি আটকে দেওয়া হবে, এমন হুমকি আগেই মিলেছে রাজপুত কার্ণি সেনাসহ কয়েকটি হিন্দুত্ববাদী সংগঠনের কাছ থেকে। পাশাপাশি গুজরাটের প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রী শঙ্করসিন বাঘেলা ‘পদ্মাবতী’ মুক্তির বিরোধিতা করে বলেছেন, ‘যদি আপত্তি না মেনে ছবিটি মুক্তি পায় তাহলে ফল ভুগতে হবে।’ এবার ছবির পরিচালককে চ্যালেঞ্জ ছুঁড়েছেন কেন্দ্রীয় মন্ত্রী।  এদিকে ছবিটি নিয়ে আশার কথা হলো, বিজেপির নির্বাচন কমিশনে ‘পদ্মাবতী’র মুক্তি আটকে দেওয়ার আবেদন করলেও, তা পত্রপাঠ খারিজ করে দেয় কমিশন। যদিও কমিশনের এই সিদ্ধান্তের বিরুদ্ধে ক্ষোভ উগরে দিয়েছে কর্ণি সেনা।

এরই মাঝে কেন্দ্রীয় মন্ত্রী গিরিরাজ সিংয়ের মন্তব্য ‘পদ্মাবতী’র মুক্তি নিয়ে উদ্বেগ আরও কিছুটা বাড়িয়ে দিলো। ৬ নভেম্বর এএনআইকে গিরিরাজ সিং ‘পদ্মাবতী’ নিয়ে যা বলেছেন, এটি বানশালির উদ্দেশ্যে এক কথায়  চ্যালেঞ্জ। এই পরিস্থিতিতে হয়তো আইনিভাবে আলোর মুখ মুখ দেখবে দীপিকা পাড়ুকোন, রণবীর সিং ও শাহিদের ‘পদ্মাবতী’। কিন্তু সেই পথ যে খুব একটা মসৃণ নয়, সেটি টের পাচ্ছেন ছবির সংশ্লিষ্টরা।