সিলেট জেলা স্টেডিয়ামে বিপিএলের টিকিটের জন্য হাহাকার

বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ড (বিসিবি) থেকে আগেই জানানো হয়েছিল আজ থেকে ইউনাইটেড কমার্শিয়াল ব্যাংক লিমিটেডে (ইউসিবি) পাওয়া যাবে বিপিএলের সিলেট পর্বের ম্যাচের টিকিট। তবে ইউসিবিএল ব্যাংক কর্তৃপক্ষ হঠাৎ করেই বিপিএলের টিকেট বিক্রির সেই সিদ্ধান্ত বাতিল করেছে। এর ফলে সিলেট জেলা স্টেডিয়ামে সকাল থেকে শুরু হয়েছে বাংলাদেশ প্রিমিয়ার লিগের (বিপিএল) সিলেট পর্বের টিকেট বিক্রি।

বহুল কাঙ্খিত টিকেট পেতে রিকাবীবাজার স্টেডিয়ামের ফটকে সোমবার রাত থেকেই লাইনে দাঁড়িয়েছেন সিলেটের ক্রিকেটপ্রেমী দর্শকরা। তীব্র রোদ ও যেন তাদের আটকে রাখতে পারছে না। তীব্র রোদের মধ্যেই টিকেটের জন্য লাইনে দাঁড়িয়ে আছেন কয়েক হাজার টিকেটপ্রত্যাশী। বেলা সাড়ে ১২টার দিকে জেলা স্টেডিয়ামের ক্রীড়া ভবনে টিকেট কাউন্টার থেকে টিকেটপ্রত্যাশীদের দীর্ঘ লাইন প্রায় অর্ধ কিলোমিটার এলাকাজুড়ে একদিকে মদন মোহন কলেজ আরেক দিকে স্টেডিয়াম মার্কেট ছাড়িয়েছে।

এদিকে টিকেট বিক্রি শুরুর মাত্র ২ ঘন্টার মাথায় ২০০, ৩০০ ও ৫০০ টাকা মূল্যের টিকেট শেষ হয়ে যাওয়ায় ক্ষোভ প্রকাশ করেছেন লাইনে থাকা টিকেটপ্রত্যাশীরা। এ নিয়ে উত্তেজনা দেখা দিলেও পুলিশের কঠোর অবস্থানের কারণে তা বেশিদূর গড়ায়নি। বিক্রেতারা বলছেন এখন শুধুমাত্র ২০০০টাকার গ্রান্ড স্ট্যান্ডের টিকেট বাকি আছে।

বেলা ১২টার দিকে টিকেট হাতে পাওয়া এক বিশ্ববিদ্যালয়ছাত্র মামুন জানান, সোমবার রাত সাড়ে ১২টা থেকে লাইনে দাঁড়িয়ে টিকেট হাতে পেয়েছি। কিন্তু পরিবার নিয়ে খেলা দেখার জন্য একাধিক টিকেট নিতে চাইলে কাউন্টার থেকে দেওয়া হয়নি।

নুরুল ইসলাম নামের এক টিকিট ক্রেতা জানান, ‘বিসিবি আগে থেকে বলেছিলো ইউসিবিএল ব্যাংক কাউন্টারে একজনকে সর্বোচ্চ ৪টা করে টিকিট দেয়া হবে। কিন্তু আমরা সোমবার সন্ধ্যা ৭টায় ইউসিবিএলের শাখায় গিয়ে জানতে পারি তাদের সঙ্গে টিকেট বিক্রির চুক্তি বাতিল হয়ে গেছে। ওখানে টিকেট পাওয়া যাবে না। সেখান থেকে সোমবার সন্ধ্যায় এখানে এসে দীর্ঘ অপেক্ষা করে মাত্র একটা টিকিট পেলাম।’

তিনি আরো বলেন, ‘নিজেদের ঘরের মাটিতে টি-টোয়েন্টির মতো এতো বড় আসরের স্বাদ যদি নাই নিতে পারলাম এর মতো আর বড় বেদনার কিছু হতেই পারে না। আমরা হতাশ।’ টিকিট না পেয়ে হতাশা নিয়ে স্টেডিয়াম ত্যাগ করার সময় নাদিয়া নামের এক ভক্ত বলেন, ‘ভোর রাতে এসেছি এখানে কিন্তু ৮ ঘণ্টা লাইনে দাঁড়ানোর পর টিকিট না পেয়ে বাড়ি ফিরে যেতে হচ্ছে।’

এ ব্যাপারে সিলেট ইন্টারন্যাশনাল ক্রিকেট স্টেডিয়ামের ভেন্যু ম্যানেজার সুজক দাস জানান, ‘টিকেট বিক্রির স্বত্ব একটি কোম্পানি পেয়েছিল। ইউসিবিএল ব্যাংকের সিলেট শাখা থেকে বিপিএল সিলেট পর্বের টিকেট বিক্রির কথাও ছিল। তবে হঠাৎ করেই ইউসিবিএল ব্যাংকের সাথে চুক্তি বাতিল হয়। এরপর সিলেট জেলা স্টেডিয়ামে আজ সকাল থেকে শুরু হয়েছে টিকেট বিক্রি।’