মেসির গোলে জয় বার্সার

ম্যাচটি ছিল বার্সা কোচ আরনেস্তো ভেলভার্দের আবেগের। খেলোয়াড়ি জীবনে প্রায় সাত মৌসুম কাটানোর পর পাঁচ বছর ছিলেন অ্যাথলেটিক বিলবাওয়ের কোচ হিসেবে। তবে দলের কোচের আবেগের ম্যাচে জয়ের ধারা ধরে রেখেছে বার্সেলোনা। লিওনেল মেসি ও পাওলিনহোর গোলে বিলবাওকে ২-০ গোলে হারিয়েছে কাতালান ক্লাবটি।

ঘরের মাঠে ম্যাচের শুরুতেই বার্সা শিবিরে আক্রমণ চালায় বিলবাও। চতুর্দশ মিনিটে রাউল গার্সিয়ার শট বার্সা ডিফেন্ডার উমতিতির হাতে লাগলে পেনাল্টির আবেদন করে স্বাগতিকরা। তবে সাড়া মেলেনি রেফারির। তিন মিনিট পর মার্ক আন্ড্রে টের-স্টেগেনকে একা পেয়েও বল জালে জড়াতে ব্যর্থ হন স্বাগতিক দলের স্প্যানিশ এই ফরোয়ার্ড আরিৎস আদুরিস।

পাল্টা আক্রমণে পরের মিনিটেই গোলের সুযোগ পেয়েছিল মেসি। তবে সুয়ারেজের বাড়ানো বলে গোলরক্ষককে ফাঁকি দিয়ে শট নিলেও তা পোস্টে লাগে। তবে ম্যাচের ৩৬ মিনিটে ঠিকই দলকে লিড এনে দেন মেসি। বাঁ দিকে জর্দি আলবার কাটব্যাকে বল জালে জড়ান পাঁচবারের বর্ষসেরা এই খেলোয়াড়। চার মিনিটে পর পাওলিনহোর শট পোস্টে লাগলে বিরতির আগে আর ব্যবধান বাড়ানো হয়নি দলটির।

বিরতি থেকে ফিরে সমতায় ফেরার সুযোগ পায় স্বাগতিক বিলবাও। ম্যাচের ৫৩ মিনিটে গার্সিয়ার হেডে বল লাগে ক্রসবারে। ৭৭ মিনিটে গোলরক্ষকের কল্যাণে আবারও বেঁচে যায় বার্সা।

এদিকে দিনের অপর ম্যাচে আলাভেসকে ২-১ গোলে হারিয়ে ২৪ পয়েন্ট নিয়ে দ্বিতীয় স্থানে আছে ভালেন্সিয়া। ভিয়ারিয়ালের সঙ্গে ১-১ গোলে ড্র করা অ্যাথলেটিকো মাদ্রিদ ২০ পয়েন্ট নিয়ে চতুর্থ স্থানে। সমান পয়েন্ট নিয়ে তৃতীয় স্থানে এক ম্যাচ কম খেলা রিয়াল মাদ্রিদ।

উল্টো যোগ করা সময়ে ব্যবধান দ্বিগুণ করেন পাওলিনহো। মেসির পাস পেয়ে সুয়ারেজের নেওয়া শট ঠেকিয়ে দেন গোলরক্ষক। কিন্তু ফিরতি বল ফাঁকায় পেয়ে সহজেই জালে জড়ান ব্রাজিলের মিডফিল্ডার। এ জয়ে ১০ ম্যাচে ২৮ পয়েন্ট নিয়ে শীর্ষে আছে বার্সেলোনা।