ফরিদপুরে অভিনব কায়দায় বিদ্যুত চুরি, ঘটছে অহরহ লোডশেডিং

বিদ্যুত চুরি রোধ করার জন্য সরকার গ্রাহক পর্যায়ে এনালগ মিটার পরির্বতন করে ডিজিটাল মিটারে সরবারহ করে। যা দ্বারা বিদ্যুত চুরি করা অসম্ভব-ই বলা য়ায়। কিন্তু বর্তমানে গ্রাহক পর্যায়েও ডিজিটাল মিটারে ঘটছে বিদ্যুত চুরির মত ঘটনা। যার ফলে বেড়ে যাচ্ছে লোডশেডিং। সম্প্রতি মধুখালীতে বিদ্যুতের ডিজিটাল মিটার থেকে অভিনব কায়দায় বিদ্যুত চুরির ঘটনা ঘটেছে।

এ ব্যাপারে মধুখালী ওজোপাডিকোর আবাসিক প্রকৌশলী জুয়েল রানার নিকট জানতে চাইলে তিনি বলেন, দুই মাসের মধ্যে অভিজান চালিয়ে উপজেলার বনোমালীদিয়া, উজানদিয়া,মছলোন্দপুর গ্রামের তিনটি মিটার জব্ধ করা হয়েছে। যারা দির্ঘদিন ধরে বৈদ্যতিক মিটারে একটি বাড়তি তার সংযোজন করে বিদ্যুত চুরি করে আসছিল। নিয়ম অনুযায়ী তাৎক্ষণিক তাদের সংযোগ বিচ্ছিন্ন করে জরিমানা করা হয়েছে। পুনরায় বিদ্যুত সংযোগের ক্ষেত্রে তাদের বকেয়া ও জরিমানা পরিশোধ করে লাইন সঞ্চালন করতে পারবে। কিন্তু পরবর্তীতে একই নামের মিটারের অধীনে এই অভিযোগ পাওয়া গেলে বিদ্যূত চুরির অভিযোগে রাষ্ট্রীয় বিধি মোতাবেক মামলা করা হবে।

তিনি আরও জানান, ক্লাম্প মিটার নামের এক বিশেষ যন্ত্রের সাহায্যে বিদ্যুতের মিটারের টেমপার পরিমাপ করা হয়। যার সাহায্যে সহজেই বোঝা যায় মিটার থেকে বিদ্যুত চুরি হচ্ছে কি না।

হারুন-অর-রশীদ, ফরিদপুর প্রতিনিধি