নিরাপদ ইন্টারনেট সচেতনতায় ২৫০ শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে জিপি-ব্র্যাক

আগে নিরাপদ ইন্টারনেট ব্যবহার কর্মসূচীতে গ্রামীণফোন দেশজুড়ে ৫০০ স্কুলের ৮০ হাজার শিক্ষার্থীকে সচেতনতায় কাজ করছে। ব্র্যাকের মাধ্যমে আরও ২৫০ শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে এখন সচেতনতার কাজ করবে জিপি।

ইন্টারনেটের নিরাপদ ব্যবহার বিষয়ে সচেতনতা তৈরি করতে কাজ করবে গ্রামীণফোন ও বেসরকারি উন্নয়ন সংস্থা ব্র্যাক।গ্রামীণফোনের চিফ কর্পোরেট অ্যাফেয়ার্স অফিসার মাহমুদ হোসেন বলেন , সবাই বিশেষত শিশুরা যেনো তাদের হাতে থাকা প্রযুক্তির মধ্য থেকে সেরাটা গ্রহণ করতে পারে সেজন্য নিরাপদ ইন্টারনেট ব্যবহার নিয়ে সচেতনতা তৈরিকে দায়িত্ব বিবেচনা করে গ্রামীণফোন। এই কর্মসূচীর বয়স এখন চার বছর। আমাদের বিশ্বাস মানুষের মধ্যে নিরাপদ ইন্টারনেট পৌঁছে দেওয়ার মাধ্যমে প্রযুক্তির সমতা তৈরি করা যাবে।

এক্ষেত্রে স্কুলগামী শিশুদের নিরাপদ ইন্টারনেট ব্যবহার করতে সচেতনতা বাড়াতে প্রতিষ্ঠান দুটি কাজ করবে। কর্মসূচীতে ব্র্যাকের মাধ্যমে নতুন করে ৫০ হাজার শিক্ষার্থীর কাছে পৌঁছাবে গ্রামীণফোন। প্রযুক্তির সর্বাপেক্ষা ব্যবহার এবং তা ব্যবহারের সুযোগ পাওয়ার ক্ষেত্রে যেসব অসাম্য রয়েছে তার মধ্যে ইন্টারনেটের অনিরাপদ ব্যবহার। ইন্টারনেটের মাধ্যমে প্রযুক্তিকে আরও সহজ-প্রাপ্য করতেই এমন উদ্যোগ বলে জানায় প্রতিষ্ঠান দুটি।

ব্র্যাকের স্ট্র্যাটেজি, কমিউনিকেশন ও এমপাওয়ারমেন্টের জ্যেষ্ঠ পরিচালক আসিফ সালেহ বলেন, দায়িত্বশীলভাবে নিরাপদ ইন্টারনেট ব্যবহারের ক্ষেত্রে শিশু ও অভিভাবকদের মধ্যে সচেতনতা বৃদ্ধিতে এখন থেকে গ্রামীণফোনের সঙ্গে তারাও থাকবেন। নতুন করে ৫০ হাজার শিক্ষার্থীদের নিরাপদ ইন্টারনেট ব্যবহারের সচেতন করে তুলতে তারাও অন্যতম ভূমিকা রাখতে পারবেন।

অনুষ্ঠানে গ্রামীণফোন এবং ব্র্যাকের কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন।