ত্রাণ নিয়ে পৌঁছেছে ভারতীয় নৌবাহিনীর জাহাজ

আজ বৃহস্পতিবার সকালে চট্টগ্রাম বন্দরের এক নম্বর জেটিতে  ত্রাণ গ্রহণ করেন চট্টগ্রামের জেলা প্রশাসক মো. জিল্লুর রহমান চৌধুরী। সকালে ভারতীয় নৌবাহিনীর জাহাজ ‘ঘড়িয়াল’ এ এক অনুষ্ঠানে বাংলাদেশে নিযুক্ত ভারতের হাইকমিশনার হর্ষবর্ধন শ্রিংলা তাঁর হাতে এই ত্রাণ তুলে দেন।

অনুষ্ঠানে ভারতীয় হাইকমিশনার হর্ষবর্ধন শ্রিংলা বলেন, চার লাখের বেশি শরণার্থীকে আশ্রয় দিয়ে বাংলাদেশ বড় চ্যালেঞ্জ মোকাবিলা করছে। ভারত এই পরিস্থিতিতে বাংলাদেশের বন্ধু, প্রতিবেশী এবং অংশীদার হিসেবে সাড়া দিয়েছে। এ জন্য জরুরি ভিত্তিতে উড়োজাহাজে করে গত ১৪ ও ১৫ সেপ্টেম্বর দুই দফা ১০৭ টনের ত্রাণসামগ্রী পাঠানো হয়েছে। এটি ত্রাণের দ্বিতীয় চালান। ফ্যামিলি প্যাক হওয়ায় ত্রাণ বিতরণেও সুবিধা হবে।

রোহিঙ্গাদের জন্য ভারতীয় নৌবাহিনীর একটি জাহাজে করে প্রায় ৭০০ টন ত্রাণ এসেছে। মিয়ানমারে রাখাইনে রোহিঙ্গাদের ওপর চলমান সহিংসতা শুরু হওয়ার পর প্রথমবার জাহাজে করে বড় আকারে এই ত্রাণ পাঠাল ভারত। গতকালের পাঠানো ত্রাণ ৬২ হাজার পরিবারকে বিতরণ করা হবে। পাটের ব্যাগে থাকা এ ত্রাণসামগ্রীর মধ্যে রয়েছে চাল, ডাল, লবণ, চিনি, রান্নার তেল, চা, গুঁড়া দুধ, বিস্কুট, মশারি ও সাবান। প্রতি পরিবারে পাঁচ থেকে ছয় সদস্য হিসেব করে প্যাকেট তৈরি করা হয়েছে। এ হিসেবে এই ত্রাণ পাচ্ছে তিন লাখ ৭২ হাজার জন রোহিঙ্গা।

অনুষ্ঠানে চট্টগ্রাম বন্দর, নৌবাহিনী ও সেনাবাহিনীর কর্মকর্তা, চট্টগ্রাম জেলা প্রশাসন, ভারতীয় নৌবাহিনী ও হাইকমিশনের কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন।