আইনগত বাধা নেই বিসিবির বার্ষিক সভায়

বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ডের (বিসিবি) বর্তমান কমিটির কাজ চালিয়ে যাওয়া থেকে বিরত রাখতে কেন নির্দেশ দেওয়া হবে না তা জানতে চেয়ে রুল দিয়েছেন হাইকোর্ট। তবে আগামী ২ অক্টোবর বিসিবির এজিএম ও ইজিএম এর ওপর কোনো স্থগিতাদেশ দেওয়া হয়নি।

ফলে ওই দিন এজিএম ও ইজিএম হতে আইনগত কোনো বাধা নেই বলে জানিয়েছেন বিসিবি ও জাতীয় ক্রিয়া পরিষদের আইনজীবী এ জে মোহাম্মদ আলী।

বিচারপতি এস এম এমদাদুলহক ও বিচারপতি ভীষ্মদেব চক্রবর্তীর সমন্বয়ে গঠিত হাইকোর্টের অবকাশকালীন বেঞ্চ আজ মঙ্গলবার এ আদেশ দেন। বিসিবির বার্ষিক সাধারণ সভা (এজিএম) ও বিশেষ সাধারণ সভা (ইজিএম) করা থেকে বিরত রাখার নির্দেশনার চেয়ে করা আবেদনের ওপর আজ আদেশের জন্য দিন রেখেছেন হাইকোর্ট।

বিসিবির ২ অক্টোবরের এজিএম ও ইজিএমের ডাকার বৈধতা চ্যালেঞ্জ করে গত রোববার বিসিবির সাবেক পরিচালক স্থপতি মোবাশ্বের হোসেন এই রিট আবেদনটি করেন, যা গতকাল সোমবার শুনানির জন্য ওঠে।

পরে ডেপুটি অ্যার্টনি জেনারেল একরামুল হক টুটুল বলেন, বিসিবি বর্তমান কমিটির কাজ চালিয়ে যাওয়া থেকে বিরত রাখতে কেন নির্দেশ দেওয়া হবে না তা জানতে চেয়ে রুল দিয়েছেন হাইকোর্ট। তবে আগামী ২ অক্টোবর বিসিবি এজিএম ও ইজিএম এর ওপর কোনো স্থগিতাদেশ দেওয়া হয়নি।

বিসিবির গঠনতন্ত্রে আনা সংশোধনীর বৈধতা চ্যালেঞ্জ করে বিসিবির সাবেক পরিচালক স্থপতি মোবাশ্বের হোসেন এবং জেলা ও বিভাগীয় ক্রীড়া সংগঠক পরিষদের তখনকার সভাপতি ইউসুফ জামিল ২০১২ সালের ডিসেম্বরে রিট করেন। প্রাথমিক শুনানি নিয়ে একই বছরের ১৩ ডিসেম্বর হাইকোর্ট রুল দেওয়ার পাশাপাশি সংশোধিত গঠনতন্ত্রের ওপর স্থগিতাদেশ দেন। রুলের চূড়ান্ত শুনানি শেষে ২০১৩ সালের ২৭ জানুয়ারি হাইকোর্ট ওই সংশোধনী অবৈধ ঘোষণা করে রায় দেন। হাইকোর্টের ওই রায়ের বিরুদ্ধে আপিল করে এনএসসি ও বিসিবি। শুনানি শেষে আপিল নিষ্পত্তি করে গত ২৬ জুলাই রায় দেন আপিল বিভাগ। এরপর ২ অক্টোবর এজিএম ও ইজিএম ঘোষণা করে বিসিবি।