মালিতে নিহত শান্তিরক্ষী সার্জেন্ট আলতাফের বাড়িতে শোকের ছায়া

আফ্রিকার দেশ মালিতে পুতে রাখা বোমা বিস্ফোরনে নিহত শান্তিরক্ষী সার্জেন্ট আলতাফের দিনাজপুরের বাড়িতে এখন শোকের মাতম। মালিতে নিহত ৩জন শান্তীরক্ষীর মধ্যে তিনি একজন।

মৃত সার্জেন্ট আলতাফের গ্রামের বাড়ি দিনাজপুর চিরিরবন্দর উপজেলার ১০নং পুনট্টি ইউনিয়নের বিশ্বনাথপুর মন্ডলপাড়ায় (বাবা: মৃত আব্দুস সাত্তার)। সে ১৯৯২ সালে বাংলাদেশ সেনাবাহিনীতে যোগদান করেন। তিনি শান্তিরক্ষা কার্যক্রম পরিচালনায় যুক্ত হতে গত রমজান মাসে মালিতে যান। সার্জেন্ট আলতাফ দুই বোন ও তিন ভাইয়ের মধ্যে সবচেয়ে ছোট। তিনি পরিবারে স্ত্রী ও দুই কন্যা সন্তান রেখে যান। বৃদ্ধা মায়ের অসুস্থতার জন্য মৃত্যুর খবর জানানো হয়নি। তার পরেও গতকাল থেকে আলতাফের মা বুঝতে পেরেছে এবং নাওয়া-খাওয়া ছেড়ে অনেকটা ভেঙ্গে পড়েছে। তার লাশ দেশে আশার প্রক্রিয়াধীন অবস্থায় রয়েছে। পারিবারিক সূত্র মতে, তার নিজ গ্রামে যথাযথ মর্যাদায় পারিবারিক গোরস্থানে সমায়ীত করা হবে।

উল্লেখ্য যে, গত ২৪ সেপ্টেম্বর রোববার আফ্রিকার মালিতে শান্তিরক্ষা কার্যক্রম পরিচালনা শেষে ক্যাম্পে ফেরার সময় পথে পুতে রাখা সন্ত্রাসীদের শক্তিশালী বোমা ইম্প্রোভাইজড এক্সপ্লোসিভ ডিভাইজ (আইইডি) বিস্ফোরণে তিনজন বাংলাদেশী শান্তিরক্ষী নিহত ও চারজন আহত হন। নিহতরা হলেন সার্জেন্ট আলতাফ-ইএমই (দিনাজপুর), ল্যান্স করপোরাল জাকিরুল-আর্টিনারি (নেত্রকোনা) ও সৈনিক মনোয়ার- ইস্ট বেঙ্গল (বরিশাল)। আহতদের চারজনকে উন্নত চিকিৎসার জন্য নিয়ে যাওয়া হয়েছে গাও শহরে।

ফখরুল হাসান পলাশ, দিনাজপুর প্রতিনিধি