নবায়ন ও নিবন্ধনের ওপর ১৫ শতাংশ হারে ভ্যাট নির্ধারণ 

নতুন করে যারা এনজিও নিবন্ধন করবে, তাদেরও ফির ওপর ১৫ শতাংশ হারে ভ্যাট দিতে হবে। এনজিও ব্যুরো থেকে এসংক্রান্ত একটি প্রজ্ঞাপন জারি করা হয়েছে।

সম্প্রতি জাতীয় রাজস্ব বোর্ড থেকে এনজিওদের কাছ থেকে নবায়ন ও নিবন্ধন ফির ওপর ১৫ শতাংশ হারে ভ্যাট নির্ধারণ করতে চিঠি আসে। দেশি-বিদেশি যেসব বেসরকারি সংস্থা (এনজিও) বাংলাদেশের আর্থসামাজিক উন্নয়নে কাজ করে, তাদের এখন থেকে নিজ নিজ সংস্থার নবায়ন করার সময় ১৫ শতাংশ হারে মূল্য সংযোজন কর বা ভ্যাট পরিশোধ করতে হবে।

প্রতিটি এনজিওর নবায়ন করতে যে ফি নির্ধারণ করা আছে, তার ওপর ১৫ শতাংশ হারে ভ্যাট পরিশোধ করতে হবে এনজিও ব্যুরোর কাছে। এনজিও ব্যুরো তা জাতীয় রাজস্ব বোর্ডকে দেবে।১ ৫ শতাংশ হারে ভ্যাট আগে দিতে হতো না এনজিওদের। প্রজ্ঞাপন জারির পর থেকে ফির ওপর ১৫ শতাংশ হারে ভ্যাট দিতে হবে দেশি-বিদেশি এনজিওদের। এনজিও ব্যুরোর এক কর্মকর্তা বলেন, ‘১৫ শতাংশ হারে ভ্যাট নেওয়ার আইনটি অনেক আগের হলেও আমাদের জানা ছিল না। এনজিও প্রতিনিধিদেরও জানা ছিল না। এনবিআরের চিঠির পরিপ্রেক্ষিতে আমরা এই প্রজ্ঞাপন জারি করেছি’। এনজিও ব্যুরো বলছে, তাদের কাছে নিবন্ধিত এনজিওর সংখ্যা এখন দুই হাজার ৫৫৩টি। এর মধ্যে দেশি ও বিদেশি দুটিই আছে। বিদায়ী ২০১৬-১৭ অর্থবছরে এনজিওদের মাধ্যমে ৬৭ কোটি ডলার অনুদান এসেছে বাংলাদেশে। বাংলাদেশি মুদ্রায় যার পরিমাণ পাঁচ হাজার ৩৬০ কোটি টাকা।