ফরিদপুরের চরভদ্রাসনে অপদ্রব্য মিশ্রিত চিংড়ি মাছ বিক্রির অভিযোগ

ফরিদপুরের চরভদ্রাসন উপজেলার সদর বাজারে অপদ্রব্য মিশ্রিত চিংড়ি মাছ বিক্রির অভিযোগ পাওয়া গেছে। আজ শনিবার সকালে এ ঘটনা ঘটে।

জানা যায়, শুক্রবার বিকেলে এক ক্রেতা সুনিল(পাচু) নামক এক মাছ বিক্রেতার কাছ হতে ৫০০ টাকা দিয়ে এক কেজি গলদা চিংড়ী ক্রয় করে। বাড়ী গিয়ে মাছ কাটতে গেলে চিংড়ীর ভেতর জেলীর মত সাদা এক ধরনের বস্তু দেখতে পায়। প্রতিটি মাছেই একই রকম দেখতে পেয়ে মাছ ফ্রিজে রেখে দেয়। শনিবার সকালে বাজারে এসে এক আড়তদারের কাছে অভিযোগ করলে তাকে টাকা ফিরিয়ে দিয়ে সান্তনা দেওয়া হয়। সুনিলের কাছে জেলযুক্ত মাছের ব্যাপারে জানতে চাইলে সে বলে আমি ভাঙ্গার পঁচা নামক এক আড়তদারের কাছ থেকে চিংড়ী কিনে আনি এবং বিক্রি করি। এর বেশি কিছু আমি জানি না।

তবে নাম প্রকাশ না করার শর্তে এক ব্যবসায়ী জানান, সুনিল দীর্ঘ দিন ধরে এ ধরনের মাছ বিক্রি করে আসছে। এছাড়া বাজার তদারকির কোন ব্যবস্থা না থাকায় এখানে উচ্চমূল্যে ও ভেজালযুক্ত মাছ বিক্রি হয়ে থাকে। উপজেলা মৎস কর্মকর্তা মালিক তানভীরের কাছে এব্যাপারে জানতে চাইলে তিনি বলেন, বিষয়টি আমার জানা নেই তবে কেউ এ জাতীয় কাজ করে থাকলে অনুসন্ধান করে তাকে আইনের আওতায় আনা হবে। সাধারণত মাছের ওজন বৃদ্ধির জন্য অসাধু ব্যবসায়ীরা চিংড়ী মাছে সিলিকা জেল জাতীয় অপদ্রব্য মিশিয়ে থাকে এমন অভিযোগ রয়েছে।

হারুন-অর-রশীদ, ফরিদপুর প্রতিনিধি