কলকাতায় পূজা উদ্বোধন করলেন জয়া

দেশে তো বটেই, জয়া আহসান এখন পশ্চিমবঙ্গে নির্মাতাদের কাছেও কাঙ্ক্ষিত অভিনেত্রীর তালিকায় আছেন ওপরের সারিতে। অরিন্দম শীলের ‘আবর্ত’ (২০১৩) ও ‘ঈগলের চোখ’ (২০১৬), ইন্দ্রনীল রায় চৌধুরী ‘একটি বাঙালি ভূতের গপ্পো’ (২০১৫) ও ‘ভালোবাসার শহর’ (২০১৭), সৃজিত মুখার্জির ‘রাজকাহিনী’ (২০১৫) ও কৌশিক গাঙ্গুলীর ‘বিসর্জন’ (২০১৭)— এসব ছবির মাধ্যমে এই অবস্থান গড়ে নিয়েছেন তিনি। তাই ওপার বাংলায় তার জনপ্রিয়তা বেড়েই চলেছে।

বিশেষ করে ‘বিসর্জন’-এ ইছামতীর পাড়ে বাংলাদেশের গ্রামাঞ্চলের হিন্দু বিধবা পদ্মা চরিত্রটি জয়াকে সবশ্রেণির জনপ্রিয়তা এনে দিয়েছে। এবারের দুর্গাপূজার প্রাক্কালে এর প্রমাণ পাওয়া গেলো। মুর্শিদাবাদের ভাগিরাতি ডেইরিতে বিশ্বকর্ম পুজো উদ্বোধনের আমন্ত্রণ পান তিনি। গত ১৭ সেপ্টেম্বর ফিতা কেটেছেন তিনি। এরপর মঞ্চে উঠে জ্বালিয়েছেন প্রদীপ। আয়োজকদের কাছ থেকে পেয়েছেন উপহারও।

এদিকে নবমীতে ঢাকার গুলশান-বনানী পূজামণ্ডপে সম্মাননা দেওয়া হবে জয়াকে। ওপার বাংলার ছবি ‘বিসর্জন’-এ দারুণ অভিনয়ের জন্য তিনি সম্প্রতি দুটি পুরস্কার পেয়েছেন। তাই পূজামণ্ডপের আয়োজনটির নাম রাখা হয়েছে ‘বিসর্জন ও জয়া সম্মাননা প্রদান’।

কৌশিক গাঙ্গুলী পরিচালিত ‘বিসর্জন’-এর সুবাদে যুক্তরাষ্ট্রের ম্যাসাচুয়েটসে অনুষ্ঠিত তৃতীয় ক্যালেডোস্কোপ ইন্ডিয়ান ফিল্ম ফেস্টিভ্যালে সেরা অভিনেত্রী হয়েছেন তিনি। ছবিটি তাকে এর আগে এনে দেয় ইন্টারন্যাশনাল বেঙ্গলি ফিল্ম অ্যাওয়ার্ডে (আইবিএফএ) সমালোচক বিভাগে সেরা অভিনেত্রীর পুরস্কার।

এদিকে আগামী ২২ সেপ্টেম্বর মুক্তি পাচ্ছে জয়ার নতুন ছবি ‘খাঁচা’। সরকারি অনুদানে ও ইমপ্রেস টেলিফিল্মের প্রযোজনায় এটি পরিচালনা করেছেন আকরাম খান। দেশভাগের কাহিনি নিয়ে সাজানো ছবিটির চিত্রনাট্য তৈরি হয়েছে কথাশিল্পী হাসান আজিজুল হকের উপন্যাস অবলম্বনে। যৌথভাবে এর চিত্রনাট্য লিখেছেন অভিনেতা আজাদ আবুল কালাম ও পরিচালক আকরাম খান।

ছবিটিতে জয়া ছাড়াও অভিনয় করেছেন আজাদ আবুল কালাম, মামুনুর রশীদ, চাঁদনী, শাহেদ আলী প্রমুখ। ‘খাঁচা’র শুটিং হয়েছে নড়াইলের লোহাগড়ার ইতনা, মুন্সিগঞ্জের দোহার ও নাটোরে। গত ৩১ আগস্ট কোনও কাটছাট ছাড়াই সেন্সর বোর্ডের ছাড়পত্র পায় ছবিটি।