আমেরিকা বিন্দুমাত্র উস্কানি দিলেই হামলা চালানো হবে: কিম

আমেরিকা বিন্দুমাত্র উস্কানি দিলেই পরমাণু হামলা চালানো হবে বলে হুঁশিয়ারি দিয়েছেন উত্তর কোরিয়ার প্রেসিডেন্ট কিম জং উন।

মার্কিন প্রেসিডেন্ট হিসেবে প্রথম জাতিসংঘে দেয়া ভাষণে উত্তর কোরিয়াকে আক্রমণ করেন ডোনাল্ড ট্রাম্প। আর এর পাল্টা জবাবে এক বিবৃতিতে উত্তর কোরিয়ার পক্ষে থেকে জানানো হয়েছে, পাশাপাশি বিন্দুমাত্র উস্কানি দেয়া হলে আমেরিকায় আগাম হামলা চালিয়ে শত্রুর ঘাঁটিগুলো গুঁড়িয়ে দেয়া হবে বলেও হুমকি দেয়া হয়েছে।

এদিকে ক্ষমতাধর দেশসমূহের সতর্কবার্তা অগ্রাহ্য করে একের পর এক সামরিক দাপট দেখিয়ে যাচ্ছে উত্তর কোরিয়া। জাপানের উপর দিয়ে ক্ষেপণাস্ত্র ছুড়ে পুরো এশিয়া-প্যাসিফিক অঞ্চলের উত্তেজনাও বাড়িয়ে দিয়েছে তারা।

উত্তর কোরিয়ার সরকারি সংস্থা কেসিএনএ দাবি করছে, নজিরবিহীন সমস্যা থাকা সত্ত্বেও উত্তর কোরিয়া বিশ্বের সবচেয়ে শক্তিশালী পরমাণু শক্তিধর দেশ হয়ে উঠেছে। উত্তর কোরিয়া কোন নিষেধাজ্ঞা, চাপ বা যুদ্ধের বিন্দুমাত্র তোয়াক্কা করে না। আমেরিকা যদি যুদ্ধের পথ বেছে নেয়, তাহলে উত্তর কোরিয়াও তার যোগ্য জবাব দিতে তৈরি। এতে আমেরিকার বেশি ক্ষতি হবে বলে দাবি করা হয়েছে।

জাতিসংঘের সাধারণ অধিবেশনে দেয়া প্রথম ভাষণে ট্রাম্প বলেছিলেন, আমেরিকা বা তার মিত্রদের ওপর হামলা চালালে উত্তর কোরিয়াকে পুরোপুরি ধ্বংস করে দেয়া হবে। ট্রাম্পের এমন বক্তব্যের পরই উত্তর কোরিয়ার পক্ষ থেকে এইসব তথ্য জানানো হয়।

এদিকে জাতিসংঘের নিষেধাজ্ঞা থাকলেও উত্তর কোরিয়া তাদের পারমাণবিক শক্তি ও অস্ত্রের প্রদর্শন করেই যাচ্ছে। বিশেষজ্ঞরা বলছেন, উত্তর কোরিয়া অভাবনীয় গতিতে দুরপাল্লার ক্ষেপণাস্ত্রের উন্নয়ন করছে। গত ৩ সেপ্টেম্বরও দূরপাল্লার ক্ষেপনাস্ত্রের পরীক্ষা চালানোর ঘোষণা দেয়।