আদালতে আত্মসমর্পণ করে জামিন পেয়েছে ইমরান

সুপ্রিম কোর্ট প্রাঙ্গণ থেকে ভাস্কর্য সরানোর প্রতিবাদে মিছিল থেকে শেখ হাসিনার বিরুদ্ধে ‘আপত্তিকর স্লোগান’ দেওয়ার অভিযোগে মানহানির মামলায় আদালতে আত্মসমর্পণ করে জামিন পেয়েছেন গণজাগরণ মঞ্চের মুখপাত্র ইমরান এইচ সরকার ও তার সহযোগী সনাতন উল্লাস। আজ বৃহস্পতিবার আদালতে আত্মসমর্পণ করে জামিন আবেদন করেন তারা। 

ঢাকার প্রথম অতিরিক্ত মুখ্য মহানগর হাকিম শেখ ছামিদুল ইসলাম আগামী ২৬ সেপ্টেম্বর পর্যন্ত তাদের জামিন মঞ্জুর করেন। ওই দিন এ বিষয়ে শুনানি হবে বলে জানা গেছে। এর আগে বুধবার একই আদালত এই দুইজনের বিরুদ্ধে গ্রেফতারি পরোয়ানা জারি করেন। আসামিদের জামিনের আবেদনের পক্ষে শুনানি করেন অ্যাডভোকেট প্রকাশ বিশ্বাসসহ কয়েকজন আইনজীবী। মামলার বাদী গোলাম রব্বানী আদালতে উপস্থিত ছিলেন।

বিচারিক আদালতে মামলাটি বদলি হয়ে আসার পর বুধবার মামলাটিতে বাদীপক্ষ ও আসামিপক্ষের উপস্থিতির জন্য দিন ধার্য ছিল। এদিন মামলার বাদী ছাত্রলীগ কেন্দ্রীয় কমিটির শিক্ষা ও পাঠচক্রবিষয়ক সম্পাদক গোলাম রাব্বানী আদালতে হাজির হতে না পারায় সময়ের আবেদন করেন। কিন্তু আসামিপক্ষ আদালতে হাজির হননি এবং কোনো ধরনের পদক্ষেপও গ্রহণ করেননি। মামলার ধার্য তারিখে তারা উপস্থিত না হওয়ায় আদালত এ পরোয়ানা জারি করেন।

দণ্ডবিধির ৫০০ ধারায় মানহানির অভিযোগ এনে ছাত্রলীগের কেন্দ্রীয় শিক্ষা ও পাঠচক্র বিষয়ক সম্পাদক গোলাম রব্বানী ঢাকার সিএমএম আদালতে মামলাটি দায়ের করেন।