শেষ নিঃশ্বাস ত্যাগ করলেন সাবেক সংসদ সদস্য মর্তুজা হোসেন

কুমিল্লা- ০১ (হোমনা-দাউদকান্দি, বর্তমান- কুমিল্লা-০২ হোমনা-তিতাস) আসনের সাবেক সংসদ সদস্য মর্তুজা হোসেন মোল্লা শনিবার দুপুরে ঢাকার একটি হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় তিনি শেষ নিঃশ্বাস ত্যাগ করেন (ইন্নালিল্লাহি ওয়াইন্না ইলাইহে রাজেউন)। দীর্ঘদিন তিনি বার্ধক্যজনিত ও শারীরিক নানা জটিলতায় ভূগছিলেন। মৃত্যুকালে তার বয়স হয়েছিল ৭৮ বছর।

রাজনৈতিক সহকর্মী ও পারিবারিক সূত্রে জানা যায়, দীর্ঘ রাজনৈতিক জীবনে মরহুম মর্তুজা হোসেন মোল্লা ১৯৭৩ খ্রি. প্রথম জাতীয় সংসদ নির্বাচনে (মাছ প্রতীক) স্বতন্ত্র প্রার্থী হিসেবে অংশগ্রহণ করেন। ১৯৭৮ সালে জাগদলের রাজনীতিতে প্রবেশ করেন। তিনি হোমনা উপজেলা জাগদলের যুগ্ম আহ্বায়ক ছিলেন। ১৯৭৯ খ্রি. দ্বিতীয় জাতীয় সংসদ নির্বাচনে বিএনপি থেকে সংসদ সদস্য নির্বাচিত হন। পরবর্তীতে ১৯৯১ খ্রি. বাংলাদেশ আওয়ামীলীগে যোগদান করে পঞ্চম জাতীয় সংসদ নির্বাচনে অংশগ্রহণ করেন। ছোটকালেই তিনি পিতৃহারা হন। তার পিতার নাম মরহুম বজলুল হুদা।

মর্তুজা হোসেন মোল্লা ১৯৩৯ খ্রী. হোমনা উপজেলার আসাদপুর ইউনিয়নের ঘনিয়ারচর গ্রামের এক সম্ভ্রান্ত মুসলীম পরিবারে জন্মগ্রহণ করেন। শিক্ষাজীবনে তিনি ১৯৫৫ খ্রী. উপজেলার দুলালপুর চন্দ্রমনি উচ্চ বিদ্যালয় থেকে এসএসসি পাশ করার পর নটরডেম কলেজ ও ঢাকা কলেজ থেকে বিএ পাশ করেন। পরবর্তীতে বিএড ডিগ্রি নিয়ে ১৯৬৩ খ্রি. তার প্রিয় বিদ্যাপিঠ দুলালপুর চন্দ্রমনি উচ্চ বিদ্যালয়ে প্রধান শিক্ষক হিসেবে যোগদান করে ১৯৭৯ খ্রি. পর্যন্ত শিক্ষকতা পেশায় আত্মনিয়োগ করেন। পাশাপাশি তিনি রাজনীতির সাথে জড়িত ছিলেন।

মৃত্যুকালে তিন মেয়েসহ বহু আত্মীয়স্বজন, পেশাগত ও রাজনৈতিক সহকর্মী এবং অসংখ্য শুভাকাঙ্খী রেখে গেছেন। বড় মেয়ে ফাতেহা নূর বিসিআইসি কলেজের শিক্ষক ও জামাতা মো. মোজাম্মেল হক নরসিংদী জেলার অতিরিক্ত জেলা ম্যাজিস্ট্রেট, মেজো মেয়ে ফাতেমা নূর ঢাকা রেসিডেন্সিয়াল মডেল কলেজের ইংরেজি বিভাগের শিক্ষক ও জামাতা জাতীয় হৃদরোগ ইনস্টিটিউটে কর্মরত ডা. আরিফুর রহমান এবং ছোট মেয়ে আসমা নূর ইউসিবিএল ব্যংকের সিনিয়র এক্সিকিউটিভ জামাতা মো. শফিকুল আবেদীন সুমন সিটি ব্যাংকে সিনিয়র অ্যাসিটেন্ট ভাইস প্রেসিডেন্ট হিসেবে কর্মরত আছেন।

বড় জামাতা নরসিংদী জেলার অতিরিক্ত জেলা ম্যাজিস্ট্রেট মো. মোজাম্মেল হক জানান, রবিবার সকাল সাড়ে ৯টায় হোমনা উপজেলা পরিষদ চত্ত্বরে প্রথম, দুলালপুর চন্দ্রমনি উচ্চ বিদ্যালয় মাঠে সকাল ১১টায় দ্বিতীয় এবং গ্রামের বাড়ি ঘনিয়ারচরে বেলা ১২টায় তৃতীয় জানাযাশেষে পারিবারিক কবরস্থানে তাকে দাফন করা হবে।