স্কুলছাত্রী ধর্ষণের দায়ে ধর্ষককে গণপিটুনী

ফরিদপুর সদর উপজেলার ঈশান গোপালপুর ইউনিয়নের লক্ষিদাসের হাট এলাকায় ৬ষ্ঠ শ্রেণির এক স্কুলছাত্রী (১৩) ধর্ষণের শিকার হয়েছে। পরে স্থানীয়রা ওই ধর্ষককে আটক করে গণপিটুনী দিয়ে পুলিশে সোপর্দ করে। মঙ্গলবার সকাল সাড়ে নয়টার দিকে এ ঘটনা ঘটে। এ ঘটনায় কোতয়ালী থানায় একটি মামলা হয়েছে।

স্থানীয় এলাকাবাসী জানায়, সকালে ঈশান গোপালপুর ইউনিয়নের চাঁদপুর গ্রামের এক দিনমজুরের ওই মেয়ে স্থানীয় শিবরামপুর স্কুলে যাবার পথে লক্ষিদাসের হাটে পৌঁছালে একই এলাকার কানাইলাল সরকার (৫০) ছাত্রীটিকে তার রাইস মিলে ডেকে নেয়। একপর্যায়ে রাইস মিলের ভেতরে আটকিয়ে ছাত্রীটিকে জোরপূর্বক ধর্ষণ করে। পরে বাজারের লোকজন বিষয়টি বুঝতে পেলে রাইস মিলের দরজা ভেঙ্গে ভেতরে প্রবেশ করে ছাত্রীটিকে উদ্ধার করে।

এ ঘটনায় বাজারের কয়েকশ’ ব্যবসায়ী ও জনতা বিক্ষুব্দ হয়ে কানাইলাল সরকারকে বেদম মারপিট করে। পরে তাকে রাইস মিলের মধ্যে আটকে রেখে পুলিশকে খবর দেয়া হয়। পরে পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে রাইস মিলের মালিক কানাইলাল সরকারকে আটক করে থানায় নিয়ে আসে।

ছাত্রীটির বাবা অভিযোগ করে জানান, কানাইলালের বাড়ি ও তার বাড়ী পাশাপাশি। স্কুলে যাবার পথে বিভিন্ন সময় তার মেয়েকে কানাইলাল নানাভাবে উত্ত্যক্ত করতো। ফলে সে এলাকা থেকে অন্য জায়গায় চলে যাবার কথা ভাবছিল। তিনি আরো জানান, কানাইলালের বিরুদ্ধে মেয়েদের উত্ত্যক্ত করার আরো অভিযোগ রয়েছে।

এ বিষয়ে কোতয়ালী থানার এসআই মিরাজ হোসেন বলেন, ধর্ষণের অভিযোগে কানাইলাল সরকারকে আটক করা হয়েছে। তার বিরুদ্ধে একটি মামলা হয়েছে।