সাকিবের ঘূর্ণির স্বীকার হলেন খাওয়াজা!

মিরপুর টেস্টে জয়ের জন্য ২৬৫ রানের লক্ষ্যে ব্যাট করছে অস্ট্রেলিয়া। উইকেট পেতে পারতেন প্রথম ওভারেই, সৌম্য সরকারের ব্যর্থতা পাওয়া হয়নি। পরের ওভারেই মিলেছে সাফল্য। সাকিব আল হাসানকে সুইপ চেষ্টায় তাইজুল ইসলামের চমৎকার ক্যাচে বিদায় নিয়েছেন উসমান খাওয়াজা।

খাওয়াজাকে ফেরালেন সাকিব

১ রান করে খাওয়াজা ফিরে যাওয়ার সময় অস্ট্রেলিয়ার ২৮/২। ডেভিড ওয়ার্নারের সঙ্গে ক্রিজে যোগ দিয়েছেন অধিনায়ক স্টিভেন স্মিথ।

প্রথম আঘাত মিরাজের

নিজের পঞ্চম ওভারে আঘাত হেনেছেন মেহেদী হাসান মিরাজ। এলবিডব্লিউ হয়ে ফিরে গেছেন ম্যাট রেনশ। ৫ রান করে রেনশ ফিরে যাওয়ার সময় অস্ট্রেলিয়ার স্কোর ২৭/১। ডেভিড ওয়ার্নারের সঙ্গে ক্রিজে যোগ দিয়েছেন উসমান খাওয়াজা।

ওয়ার্নারকে জীবন দিলেন সৌম্য

বোলিংয়ে এসেই ডেভিড ওয়ার্নারের উইকেট পেতে পারতেন সাকিব আল হাসান। তাকে কাট করতে গিয়ে স্লিপে ক্যাচ দিয়েছিলেন বাঁহাতি উদ্বোধনী ব্যাটসম্যান। বলের লাইন থেকে নিয়ে সরিয়ে নেন সৌম্য সরকার। আউট হওয়ার বদলে উল্টো চার পেয়ে যান ওয়ার্নার। সে সময়ে ১৪ রানে ব্যাট করছিলেন ওয়ার্নার।

দু‌ই পাশেই অফ স্পিনে শুরু বাংলাদেশের

দুই অফ স্পিনার মেহেদী মিরাজ ও নাসির হোসেনকে দিয়ে আক্রমণ শুরু করেছে বাংলাদেশ। নতুন বলে শুরু করাটা মিরাজের জন্য নিয়মিত। ক্যারিয়ারে দ্বিতীয়বারের মতো পেলেন নাসির।

অস্ট্রেলিয়ার লক্ষ্য ২৬৫ রান

প্রথম ইনিংসে ৪৩ রানের লিড নেওয়া বাংলাদেশ জয়ের জন্য অস্ট্রেলিয়াকে দিয়েছে ২৬৫ রানের লক্ষ্য। তামিম ইকবালের ৭৮ আর মুশফিকুর রহিমের ৪১ রানের ওপর ভর করে স্বাগতিকরা দ্বিতীয় ইনিংসে করেছে ২২১ রান।

৩৫ রানে শেষ ৫ উইকেট তুলে নিয়ে আশা বাঁচিয়ে রেখেছে অস্ট্রেলিয়া। অতিথিদের ঘুরে দাঁড়ানোয় সবচেয়ে বড় অবদান ন্যাথান লায়নের। ৮২ রানে এই অফ স্পিনার নিয়েছেন ৬ উইকেট।

সংক্ষিপ্ত স্কোর:

বাংলাদেশ ২য় ইনিংস: ৭৯.৩ ওভারে ২২১ (তামিম ৭৮, সৌম্য ১৫, তাইজুল ৪, ইমরুল ২, মুশফিক ৪১, সাকিব ৫, সাব্বির ২২, নাসির ০, মিরাজ ২৬, শফিউল ৯, মুস্তাফিজ ০; হেইজেলউড ০/৩, কামিন্স ১/৩৮, লায়ন ৬/৮২, ম্যাক্সওয়েল ০/২৪, অ্যাগার ২/৫৫, খাওয়াজা ০/১)। অস্ট্রেলিয়াঃ ৫৪/২ ওভারঃ ১৪.৪