জীবন পেয়ে দাপটে ওয়ার্নার!

ক্যাচ মিস তো ম্যাচ মিস। ১৪ রানে জীবন পাওয়া ডেভিড ওয়ার্নার দাপটে মহাচিন্তায় পড়ে গেছে বাংলাদেশ। দুই উইকেটে ১০৯ রান নিয়ে তৃতীয় দিনের খেলা শেষ করেছে অজিরা। জয়ের জন্য তাদের আর প্রয়োজন ১৫৬ রান। হাতে আছে ৮ উইকেট। জীবন পাওয়া ডেভিড ওয়ার্নার আছেন ৭৫ রানে অপরাজিত।

প্রথম ইনিংসে বাংলাদেশ করেছিল ২৬০ রান। জবাবে অজিদের সংগ্রহ ২১৭। প্রথম ইনিংসে ৪৩ রানে লিড নেয় বাংলাদেশ। দ্বিতীয় ইনিংসে বাংলাদেশ ২২১ রানে অলআউট হলে অস্ট্রেলিয়ার সামনে টার্গেট দাঁড়ায় ২৬৫। রান। এই উইকেটে ২৬৫ রান ছোট টার্গেট ছিল না। কিন্তু সুযোগ কাজে লাগাতে না পারায় মিরপুরে চাপে পড়ে গেছে বাংলাদেশ। মঙ্গলবার চা বিরতির কিছু সময় পর অলআউট হয় বাংলাদেশ। ২৬৫ রানের টার্গেট নিয়ে ব্যাট করতে নেমে শুরুতেই দারুণ তোপের মুখে পড়েন অজি ব্যাটসমানরা। বাংলাদেশি স্পিনারদের খেলতেই পারছিলেন না অজি ব্যাটসম্যানরা।

ওপেনার রেনশকে ৫ রানে ফিরিয়ে দলকে প্রথম উইকেট এনে দেন মিরাজ। এরপরই আঘাত হানেন সাকিব। ১ রানে আউট করেন উসমান খাজাকে। অবশ্য তার আগে আরো একটি উইকেট পেতে পারতেন সাকিব। এবং সেটা মহামূল্যবান উইকেট। কিন্তু স্লিপে ওয়ার্নারের ওঠা ক্যাচটি নিতে পারেননি সৌম্য।

অস্ট্রেলিয়ার রান তখন ২৭। ব্যক্তিগত ১৪ রানের মাথায় সাকিবের বলে স্লিপে ক্যাচ তুলে দিয়েছিলেন ডেভিড ওয়ার্নার। খুব কঠিন ছিল না। বলটি সৌম্যের মুখ বরাবর যাচ্ছিলো। সৌম্য নিচু হয়ে নিজেকে বাঁচালেন দৃষ্টিকটূভাবে। অথচ বল বরাবর দুহাত নিলেই ক্যাচটা নিতে পারতেন। সেটা না করে মুখ বাঁচাতে নিচু হয়ে বসে পড়েন সৌম্য।

জীবন পেয়ে তরতর করে এগিয়ে যান ডেভিড ওয়ার্নার। বাংলাদেশকে হতাশ করে খেলেন ঠিক ওয়ানডে স্টাইলে। তাকে সঙ্গ দেন ডেভিড ওয়ার্নার। ৯৫ বলে ৭৫ রানে অপরাজিত আছেন তিনি। অধিনায়ক স্মিথ আছেন ২৫ রানে অপরাজিত। সৌম্যের ক্যাচ ড্রপে বড্ড মূল্য দিতে হচ্ছে বাংলাদেশকে।

সংক্ষিপ্ত স্কোর

তৃতীয় দিন শেষে জয় পেতে অস্ট্রেলিয়ার প্রয়োজন ১৫৬ রান, হাতে আট উইকেট

বাংলাদেশ প্রথম ইনিংস: ২৬০ (৭৮.৫ ওভার)

(তামিম ইকবাল ৭১, সৌম্য সরকার ৮, ইমরুল কায়েস ০, সাব্বির রহমান ০, সাকিব আল হাসান ৮৪, মুশফিকুর রহিম ১৮, নাসির হোসেন ২৩, মেহেদী হাসান মিরাজ ১৮, তাইজুল ইসলাম ৪, শফিউল ইসলাম ১৩, মোস্তাফিজুর রহমান ০*; জস হ্যাজলেউড ০/৩৯, প্যাট কামিন্স ৩/৬৩, নাথান লায়ন ৩/৭৯, অ্যাশটন আগার ৩/৪৬, গ্লেন ম্যাক্সওয়েল ১/১৫)।

স্ট্রেলিয়া প্রথম ইনিংস: ২১৭ (৭৪.৫ ওভার)

(ডেভিড ওয়ার্নার ৮, ম্যাট রেনশ ৪৫, উসমান খাজা ১, নাথান লায়ন ০, স্টিভেন স্মিথ ৮, পিটার হ্যান্ডসকম্ব ৩৩, গ্লেন ম্যাক্সওয়েল ২৩, ম্যাথু ওয়েড ৫, অ্যাশটন আগার ৪১, প্যাট কামিন্স ২৫, জস হ্যাজলেউড ৫; শফিউল ইসলাম ০/২১, মেহেদী হাসান মিরাজ ৩/৬২, সাকিব আল হাসান ৫/৬৮, তাইজুল ইসলাম ১/৩২, মোস্তাফিজুর রহমান ০/১৩, নাসির হোসেন ০/৩)।

বাংলাদেশ দ্বিতীয় ইনিংস: ২২১ (৭৯.৩ ওভার)

(তামিম ইকবাল ৭৮, সৌম্য সরকার ১৫, তাইজুল ইসলাম ৪, ইমরুল কায়েস ২, মুশফিকুর রহিম ৪১, সাকিব আল হাসান ৫, সাব্বির রহমান ২২, নাসির হোসেন ০, মেহেদী হাসান মিরাজ ২৬, শফিউল ইসলাম ৯, মোস্তাফিজুর রহমান ০*; জস হ্যাজলেউড ০/৩, প্যাট কামিন্স ০/৩৮, নাথান লায়ন ৬/৮২, গ্লেন ম্যাক্সওয়েল ০/২৪, অ্যাশটন আগার ২/৫৫, উসমান খাজা ০/১)।

অস্ট্রেলিয়া দ্বিতীয় ইনিংস: ১০৯/২ (৩০ ওভার)

(ডেভিড ওয়ার্নার ৭৫*, ম্যাট রেনশ ৫, উসমান খাজা ১, স্টিভেন স্মিথ ২৫*; মেহেদী হাসান মিরাজ ১/৫১, নাসির হোসেন ০/২, সাকিব আল হাসান ১/২৮, তাইজুল ইসলাম ০/১৭, মোস্তাফিজুর রহমান ০/৮)।