টাইগারদের বোলিংয়ে অস্ট্রেলিয়ার বিপর্যয়

বাংলাদেশকে ২৬০ রানে থামিয়ে দিয়ে প্রথমদিনই ব্যাট করতে নামল অস্ট্রেলিয়া। এক পাশ থেকে শফিউল আরেক পাশ থেকে মেহেদী হাসান মিরাজের হাতে অস্ট্রেলিয়া ইনিংসে আক্রমণের দায়িত্ব তুলে দিলেন অধিনায়ক মুশফিক।

ষষ্ঠ ওভারেই মিরাজের স্পিন বিষে নীল অস্ট্রেলিয়া। ওভারের দ্বিতীয় বলেই মিরাজের বলে পুরোপুরি পরাস্ত হলেন ওয়ার্নার। আবেদন করতেই আঙুল তুলে দিলেন আম্পায়ার আলিমদার। তবে নিজের ব্যাপারে আত্মবিশ্বাসী ছিলেন ওয়ার্নার। এ কারণে রিভিউ চেয়ে বসলেন। রিভিউতে দেখা গেল, ব্যাটের কানায় লেগে প্যাডে আঘাত হেনেছে বল। সুতরাং আলিমদার নিজের ভুল স্বীকার করে নটআউট ঘোষণা করলেন।

পরের বলে আর কোনো সন্দেহ-সংশয়ের অবকাশ রাখলেন না মিরাজ। এবারও পুরোপুরি পরাস্ত ওয়ার্নার। এবারও জোরালো আবেদন। কোনো দ্বিধা না করে আবারও আঙুল তুলে দিলেন আলিম দার। এবার আর রিভিউর আবেদনও করলেন না আম্পায়ার। ৮ রান করে ফিরে গেলেন ওয়ার্নার। পরের ওভারে বোলিংয়ে আসলেন সাকিব আল হাসান। ওয়ার্নারের আউটে চাপে পড়া অস্ট্রেলিয়াকে আরও চেপে ধরলেন যেন তিনি। সাকিবের প্রথম বলেই দ্রুত সিঙ্গেল নিতে গিয়ে রানআউট হয়ে গেলেন উসমান খাজা। রানের খাতাই খুলতে পারলেন না তিনি।

স্পিন ঘূর্ণি অব্যাহত রাখলেন সাকিব। উপমহাদেশের উইকেটে স্পিন যে কতটা বিষাক্ত সেটা তিনি আবারও বুঝিয়ে দিলেন অস্ট্রেলিয়ানদের। উসমান খাজা আউট হওয়ার পর অস্ট্রেলিয়া নাইট ওয়াচম্যান হিসেবে উইকেটে পাঠিয়েছিল নাথান লিওনকে। কিন্তু তিনিও সাকিবের ঘূর্ণি ফাঁদে পড়লেন। আউট হয়ে গেলেন কোনো রান না করেই।

১৪ রানেই টপটপ পড়ে গেল অস্ট্রেলিয়ার ৩ উইকেট। দারুণ চাপে পড়ে গেল স্মিথের দল। এ রিপোর্ট লেখার সময় অস্ট্রেলিয়ার রান ৩ উইকেটে ১৬। উইকেটে রয়েছেন স্টিভেন স্মিথ এবং ম্যাট রেনশ।