বান্দরবানের ঘরে ঘরে চিকুনগুনিয়া,নীরব স্বাস্থ্য বিভাগ

বান্দরবানে চিকুনগুনিয়া রোগের প্রকোপ আশংকাজনক ভাবে বেড়েছে। ঘরে ঘরেই শিশুসহ একাধিক লোক চিকুনগুনিয়ায় আক্রান্ত বলে জানা গেছে। তবে হাসপাতাল বা ক্লিনিকসমুহে চিকুনগুনিয়া আক্রান্ত রোগীরা ভর্তি হচ্ছে না, তারা নিজ নিজ বাড়ি-ঘরেই চিকিৎসা গ্রহণ করছেন। অন্যদিকে জেলা স্বাস্থ্য বিভাগ চিকুনগুনিয়া রোগ সম্পর্কে সচেতনামুলক কোন সভা-সমাবেশের উদ্যোগই গ্রহণ করেনি এখনও। অথচ সারাদেশেই চিকুনগুনিয়া রোগ থেকে সজাগ ও সতর্ক থাকার জন্যে সভা-সমাবেশ করা হচ্ছে।

বান্দরবান জেলার ২টি পৌরসভা এবং ৭টি উপজেলায় বিপুল সংখ্যক নারী-শিশুসহ বিভিন্ন বয়সী মানুষ চিকুনগুনিয়ায় আক্রান্ত হয়েছেন। সদর হাসপাতালে চিকুনগুনিয়া রোগ নির্ণয়ে কোন যন্ত্রপাতিও নেই বলে গুরুতর অভিযোগ রযেছে। স্থানীয়ভাবে জানা গেছে, চিকুনগুনিয়া রোগে আক্রান্ত হওয়ার পর থেকে ৭দিন পর্যন্ত রোগীর পুরো শরীরের গিটায় গিটায় অসহ্য ব্যাথা এবং গায়ে প্রচন্ড জ্বর অনুভুত হয়। চিকুনগুনিয়া নিশ্চিতে প্যাথলজিতে রক্তকাঁচ পরীক্ষার জন্যে প্রায় ৫০০ টাকা, ওষুধ ২০০ টাকা ঠান্ডাপানিসহ বিবিধ খরচ লাগে ২০০ টাকা করে। একজন চিকুনগুনিয়া রোগীর জন্যে গড়ে ৯০০ টাকা খরচ করতে হয় সুস্থতার লক্ষ্যে। এ অর্থ গরিব অসহায় বিশেষ করে দিনমজুর পরিবারদের পক্ষে মোটেও সম্ভব হয়না। চরম দুর্ভোগ পোহাতে হয় সাধারণ মানুষকে ।

সোহেল কান্তি নাথ, বান্দরবান প্রতিনিধি