জব্দ করা স্বর্ণ কেন ফেরত পাবে না আপন জুয়েলার্সঃ হাইকোর্ট

আপন জুয়েলার্সের জব্দ করা স্বর্ণ কেন ফেরত দেওয়ার নির্দেশ দেওয়া হবে না তা জানতে চেয়ে রুল জারি করেছেন হাইকোর্ট। জাতীয় রাজস্ব বোর্ডের চেয়ারম্যান, শুল্ক গোয়েন্দা অধিদফতরের মহাপরিচালকসহ সংশ্লিষ্টদের দুই সপ্তাহের মধ্যে রুলের জবাব দিতে বলা হয়েছে।

এ বিষয়ে করা পাঁচটি রিটের শুনানি নিয়ে মঙ্গলবার বিচারপতি সৈয়দ রেফাত আহমদ ও বিচারপতি ফারুকের সমন্বয়ে গঠিত হাইকোর্ট বেঞ্চ এ রুল জারি করেন। একইসঙ্গে শুল্ক গোয়েন্দা বিভাগের দেওয়া নোটিশ কেন বেআইনি ঘোষণা করা হবে না রুলে তাও জানতে চাওয়া হয়েছে।

বনানীর হোটেলে দুই বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্রীকে ধর্ষণের মামলার প্রধান আসামি সাফাত আহমেদের পরিবারের মালিকানাধীন আপন জুয়েলার্সের পাঁচটি শো-রুমে অভিযান চালিয়ে জব্দ করা প্রায় সাড়ে ১৩ মণ স্বর্ণ এবং সাত হাজার ৩৬৯ পিস হীরার অলংকার গত ৫ জুন বাংলাদেশ ব্যাংকের কাছে জমা দেয় শুল্ক গোয়েন্দা ও তদন্ত অধিদফতর। এসবের মূল্য প্রায় ২১৯ কোটি ১০ লাখ ২৭ হাজার টাকা।

শুল্ক গোয়েন্দা সূত্র জানায়, শুল্ক গোয়েন্দারা আপন জুয়েলার্সের গুলশান ডিসিসি মার্কেট, গুলশান এভিনিউ, উত্তরা, সীমান্ত স্কয়ার ও মৌচাকের ৫টি শো-রুমে অভিযান চালিয়ে সাড়ে ১৩ মণ স্বর্ণ ও ৭ হাজার ৩৬৯ পিস হীরার অলংকার সাময়িকভাবে জব্দ করেন। এসব অলংকার মজুদের বিষয়ে আপন জুয়েলার্স কর্তৃপক্ষ যৌক্তিক ও গ্রহণযোগ্য কোনো ব্যাখ্যা দিতে না পারায় তা চোরাচালান হিসেবে প্রতীয়মান হয়েছে।

ফলে আপন জুয়েলার্স থেকে জব্দ করা ২১৯ কোটি ১০ লাখ ২৭ হাজার টাকা মূল্যের মোট সাড়ে ১৩ মণ স্বর্ণালংকার এবং আনুমানিক ১০ কোটি টাকার ৭ হাজার ৩৬৯ পিস হীরার অলংকার আইন অনুযায়ী বাংলাদেশ ব্যাংকে জমা দেয়া হয়।