বন্যায় ক্ষতিগ্রস্তদের ঘরবাড়ি মেরামত করে দেওয়া হবেঃ প্রধানমন্ত্রী

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেছেন, বন্যায় যাদের ঘরবাড়ি ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে তা মেরামত করে দেওয়া হবে। নতুন ফসল ঘরে না ওঠা পর্যন্ত বন্যার্তদের সহায়তা দেওয়া হবে।

রোববার দিনাজপুর জিলা স্কুল আশ্রয় কেন্দ্রে বন্যার্তদের মধ্যে ত্রাণ বিতরণ শেষে তিনি এ কথা বলেন। এর আগে সকাল ১০টার পর দিরাজপুর গোর-এ শহীদ ময়দানে হেলিকপ্টারে করে তিনি অবতরণ করেন। এরপর তিনি দিনাজপুর জিলা স্কুল আশ্রয়কেন্দ্রে বন্যার্তদের হাতে ত্রাণ তুলে দেন।

প্রধানমন্ত্রীর দিনাজপুর আগমন উপলক্ষে ব্যাপক নিরাপত্তা ব্যবস্থা গ্রহণ করা হয়েছে। শহরের গুরুত্বপূর্ণ মোড়গুলোতে মোতায়েন করা হয়েছে অতিরিক্ত পুলিশ। এরপর প্রধানমন্ত্রী কুড়িগ্রাম জেলায় বন্যাকবলিত এলাকা পরিদর্শন করবেন এবং রাজারহাট উপজেলার পাঙ্গারানী লক্ষীপ্রিয়া স্কুল অ্যান্ড কলেজ মাঠে বন্যা দুর্গতদের মাঝে ত্রাণ বিতরণ করবেন। ত্রাণ বিতরণ শেষে রোববার বিকেলে ঢাকায় ফিরবেন তিনি।

উল্লেখ্য, অতিবৃষ্টি ও পাহাড়ি ঢলে সৃষ্ট বন্যায় এ পর্যন্ত দেশের ৩০ জেলায় ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছেন ৫৮ লাখ ৪৬ হাজার ৬২০ মানুষ। মৃত্যু হয়েছে ৯৮ জনের। দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা অধিদফতরের সর্বশেষ তথ্য অনুযায়ী, এবারের বন্যায় ১৮ লাখ ৮৫ হাজার ৫৮৯ হেক্টর ফসলি জমি ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে।

গত এক সপ্তাহে কুড়িগ্রামে ১৮ জন, লালমনিরহাটে ৬ জন, সুনামগঞ্জে ২ জন, নেত্রকোনায় ২ জন, নীলফামারীতে ৮ জন, গাইবান্ধায় ৪ জন, সিরাজগঞ্জে ৪ জন, দিনাজপুরে ৩০ জন, জামালপুরে ৯ জন, ঠাকুরগাঁওয়ে ১ জন, নওগাঁয় ৪ জন, যশোর ৩, শেরপুর ৩, মৌলভীবাজার ২, কুমিল্লা ২, সব মিলিয়ে মোট ৯৮ জনের মৃত্যু হয়েছে।